বৃহস্পতিবার ২১ আশ্বিন, ১৪২৯ ৬ অক্টোবর, ২০২২ বৃহস্পতিবার

সাইবার সিকিউরিটি আইনে শাল্লার ঝুমন দাশ আবারো আটক! মিশ্র প্রতিক্রিয়া..

অনলাইন ডেস্ক: সাইবার সিকিউরিটি আইনে শাল্লার ঝুমন দাশ আবারো আটক! মিশ্র প্রতিক্রিয়া..
সিলেট টুডের নিউজ অনুযায়ী দুদিন ধরে তাকে ফলো করে আটক করেছে শাল্লা থানা পুলিশ।

অথচ এটি ছিলো একটি ভাইরাল পোস্ট।অসমর্থিত তথ্য অনুযায়ী ঝুমন দাস অন্যের করা পোস্টটি শেয়ার করেছেন।মন্দিরের গায়ে মসজিদের দানবাক্স ঝুলিয়ে দেয়ার সেই ছবিটা।যা দেশে বিদেশে অনেকেই আপলোড দিয়েছেন নিজেদের টাইমলাইনে। 

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মূল পোষ্টদাতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে এমন খবর নেই!  

উল্লেখ্য,সম্প্রতি মন্দিরের গায়ে মসজিদের দানবাক্স ঝুলিয়ে দেয়ার একটি ছবিটা ভাইরাল হওয়ার পর দেশে বিদেশে অনেকেই আপলোড দিয়েছেন নিজেদের টাইমলাইনে। 

অন্য আরেকটি ঘটনার খবরে জানা গেছে,গত ২০২১ সালের ২১ মে একটি ফৌজদারি মামলার জেরে ‘সীতানাথ সূত্রধরের ছেলে সুভাষ সূত্রধরকে আজ সকালে চালান করা হয়েছে’ – শিরোনামে দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগরের সুভাষ সুত্রধর ক্ষুব্ধ হয়ে প্রবীর সিকদার ও গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপু সহ সহ চার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইবুনাল আদালতে মামলা দায়ের করেন।


বাদীর অভিযোগ,”আসামি সুভাষ সুত্রধরকে গ্রেফতারের পর কোর্টে চালান করা হয়েছে” খবরটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করায় বাদীর মানহানী হয়েছে। 
অবশ্য,অভিযুক্তরা কেউ গ্রেফতার হননি।

যেকোন সংবাদ প্রকাশের কারণে মানহানির অভিযোগে সাইবার সিকিউরিটি আইনে মামলার ভয়ে এখন সবার মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে!

এদিকে ঝুমন দাস গ্রেফতারের পর মিশ্র প্রতিক্রিয়ায় একজন মন্তব্য করেন, “হায়রে ডিজিটাল সিকিউরিটি এক্ট!! এভাবে আর কত?অনুভূতি আর কতকাল এক পাক্ষিক আহত হবে এই দেশে?”
একপাশে আইন। আরেকপাশে চাপাতি। মাঝখানে স্বাধীনচেতা কিছু মানুষের অক্ষম দীর্ঘশ্বাস!!
শাল্লা থানা পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে , গ্রেফতার নয় , আটক করা হয়েছে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। সেটা হলে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া হউক তাকে। ২৪ ঘন্টার বেশী কাউকে কাস্টডিতে রাখা সম্পূর্ণ আইনবিরুদ্ধ

বিষেরবাঁশী.কম

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,আইন-আদালত,খোলা বাতায়ন,জনদূর্ভোগ,জাতীয়,রাজনীতি,শীর্ষ সংবাদ,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.