বৃহস্পতিবার ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৯ ডিসেম্বর, ২০২১ বৃহস্পতিবার

ভাইরাল সেই চায়ের দোকানে পুলিশের অভিযান, ১৪ মোটরসাইকেল আটক

অনলাইন ডেস্ক:- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে শাহবাজপুর বাজারে ভাইরাল হওয়া আশিক টি স্টলে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। সেখান থেকে কাগজপত্রবিহীন ১৪টি মোটরসাইকেল আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে ইন্সপেক্টর (তদন্ত) সেহাবুর রহমানের নেতৃত্বে সরাইল থানা পুলিশ এ অভিযান পরিচালনা করে।

পুলিশ জানায়, ২২১০ স্বাদের চা পান করতে দূর-দূরান্ত থেকে অনেক লোক সমবেত হন এ দোকানে। বিশেষ করে বিকাল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত আশপাশের নাসিরনগর, বিজয়নগর, ব্রাক্ষণবাড়িয়া সদর, আশুগঞ্জ, মাধবপুরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে বাহারি মোটরসাইকেল নিয়ে চা পান করতে লোকজনের ভিড় দেখা যায়। এসব মোটরসাইকেল বেশিরভাগই কাগজপত্রবিহীন।

অনেক সময় অবাঞ্ছিত লোকজনও এখানে আসে বলে বিভিন্ন মাধ্যমে তথ্য পায় পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সরাইল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) সেহাবুর রহমানের নেতৃত্বে থানার কয়েকজন এসআই, এএসআই ও ফোর্সের সমন্বয়ে টিম চা স্টলের সামনে অভিযান চালায়। সেখানে বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা লোকজনদের মোটরসাইকেল চেক করে কাগজপত্র না থাকায় মোট ১৪টি মোটরসাইকেল আটক করে সরাইল থানায় আনা হয়।

কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয় সেখানে। মাদক সংশ্লিষ্ট না থাকায় কাউকে গেফতার করা হয়নি। থানা এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানায় পুলিশ।

সরাইল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসলাম হোসেন বলেন, শাহবাজপুর আশিকের টি স্টলে দূরদূরান্ত থেকে অবৈধ গাড়ি নিয়ে লোক আসে এমন তথ্য আমাদের কাছে ছিলো। তার পাশাপাশি এখানে নেশাগ্রস্থ ছেলেরা আসতে পারে এমন ধারণা থেকেই অভিজান চালানো হয়েছে। অভিজানে সেখান থেকে ১৪টি কাগজপত্র বিহীন মোটরসাইকেল আটক করা হয়। এগুলো যাচাই বাচাই করে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, শাহবাজপুর আশিক টি স্টলের ২১০ ধরনের চায়ের মধ্যে মাদকসেবীদের কাছে অতিরিক্ত চিনির চায়ের জনপ্রিয়তাই বেশি বলে জানা যায়। এটি স্থানীয়ভাবে ‘পিনিক’ চা নামেও পরিচিত। অভিযোগ উঠেছে বিজয়নগর, চান্দুরা ও মাধবপুরসহ বিভিন্ন সীমান্তে মাদকগ্রহণ শেষে মাদকের কার্যকারিতা বাড়াতে এ চা সেবন করে মাদকসেবীরা।

বিষেরবাঁশী.কম / ডেস্ক / রূপা

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.