সোমবার ২০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৫ ডিসেম্বর, ২০২২ সোমবার

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ভারতীয় পাসপোর্ট ব্যবহারের অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক: সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের সিলেট জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তুষার কান্তি সাহার বিরুদ্ধে ভারতীয় পাসপোর্ট ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। জাতীয় সংসদের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে গতকাল এই অভিযোগ করেন কমিটির একজন সদস্য। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ সময় সভায় উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে অভিযোগের তদন্ত প্রতিবেদন কমিটির আগামী সভায় উপস্থাপনের জন্য সুপারিশ করা হয়।

জানতে চাইলে সংসদীয় কমিটির সভাপতি একাব্বর হোসেন আজকের পত্রিকাকে বলেন, ওই কর্মকর্তা বিভাগের নিয়মনীতি মেনে চলেন না। শুনেছি, তিনি ভারতীয় পাসপোর্ট ব্যবহার করেন। এ অভিযোগের সত্যতা জানতে তাঁকে তলব করা হয়েছে।

কমিটির একজন সদস্য বলেন, কমিটির কাছে অভিযোগ আছে, কলকাতায় তুষার কান্তি সাহার বাড়ি-গাড়ি রয়েছে। তাঁর পরিবারের সদস্যরা সেখানেই থাকেন। তিনি সরকারি কাজে অবহেলা করে প্রায়ই ভারতে যান। এ সময় তিনি সরকারি পাসপোর্ট ব্যবহার করেন না।

কমিটির সদস্য সাংসদ এনামুল হক বলেন, অভিযোগ আছে, অনেকবার ভারত গিয়েছেন কোনো ভিসা ও পাসপোর্ট ছাড়া। তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগও রয়েছে। সভাপতি নির্দেশ দিয়েছেন, মন্ত্রণালয়ের সচিবের নেতৃত্বে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন তদন্ত কমিটি করতে।

সংসদীয় কমিটির অভিযোগ প্রসঙ্গে তুষার কান্তি সাহার মোবাইল ফোনে কল দেওয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি। পরে এসএমএস পাঠালেও তিনি কোনো উত্তর দেননি। তাঁর সিলেটের কার্যালয়ে গিয়ে সেখানেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

সংসদ সচিবালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের সিলেট জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তুষার কান্তি সাহার বিরুদ্ধে প্রাপ্ত অভিযোগসমূহ সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব বা অতিরিক্ত সচিবের মাধ্যমে পুনঃ তদন্তপূর্বক আগামী সভায় উপস্থাপনের জন্য কমিটি মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করে।

 সূত্র জানায়, পুলিশের পরিবর্তে নিজস্ব বাহিনীর মাধ্যমে সড়কের নিরাপত্তা দিতে বলছে সংসদীয় কমিটি। একই সঙ্গে কমিটি সব সেতুর টোল আদায়ে একটি একক সফটওয়্যার ব্যবহারের সুপারিশ করেছে।
বৈঠকে জাতীয় সংসদে উত্থাপিত এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষাপূর্বক রিপোর্ট প্রদানের জন্য কমিটিতে পাঠানো ‘মহাসড়ক বিল-২০২১’ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয় এবং প্রয়োজনীয় সংযোজন, সংশোধন ও পরিমার্জনের পর বিলটি জাতীয় সংসদে পেশের উদ্দেশ্যে সংশোধিত আকারে সংসদে রিপোর্ট প্রদানের জন্য কমিটি সুপারিশ করে।

সভায় সেতুমন্ত্রী ছাড়াও কমিটির সদস্য এনামুল হক, আবু জাহির, রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিক, ছলিম উদ্দীন তরফদার, শেখ সালাহউদ্দিন, সৈয়দ আবু হোসেন ও রাবেয়া আলীম উপস্থিত ছিলেন।

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/ব্রিজ

Categories: জাতীয়

Leave A Reply

Your email address will not be published.