সোমবার ৭ আষাঢ়, ১৪২৮ ২১ জুন, ২০২১ সোমবার

হল না খুলেই পরীক্ষার সিদ্ধান্ত, এত শিক্ষার্থী থাকবে কোথায়?

অনলাইন ডেস্ক : আবাসন সুবিধা নিশ্চিত না করেই চূড়ান্ত পরীক্ষার সিদ্ধান্তে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) বিভিন্ন হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও দিনাজপুর শহর এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশের বিভিন্ন মেসে থাকা শিক্ষার্থীরা করোনাকালীন মেস ছেড়ে দেওয়ায় তারাও বিপাকে পড়েছেন।

গত ৩১ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্ববিদ্যালয়ের রুটিন উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিধান চন্দ্র হালদারের সভাপতিত্বে বিভিন্ন অনুষদের ডিনদের নিয়ে এক আলোচনা সভায় চলতি মাসের ১০ জুন থেকে সকল ব্যাচের সশরীরে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়। পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থীরা সন্তুষ্ট হলেও প্রায় বারো হাজার শিক্ষার্থীর আবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত না হওয়ায় ইতিমধ্যেই ভোগান্তিতে পড়েছে অনেক শিক্ষার্থী।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বাঁশেরহাট এলাকায় বিভিন্ন মেসে প্রায় ১২ হাজার শিক্ষার্থীর আবাসন সুবিধা পাওয়া একেবারে অসম্ভব।

বিভিন্ন মেসের মালিক সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন মেসগুলোতে সর্বোচ্চ তিন হাজার শিক্ষার্থী আবাসন সুবিধা পাবে। এমন পরিস্থিতিতে হল না খুললে এক মাসের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে দিনাজপুর শহরে মেস ভাড়া নিয়ে থাকতে হবে বিভিন্ন হলের আবাসিক শিক্ষার্থীদের। এখন পরীক্ষার জন্য শিক্ষার্থীরা এক মাস চুক্তিতে মেসে থাকতে চাইলেও ছয় মাস চুক্তিতে মেসে অবস্থান করা ব্যতীত মেস মালিকরা মেস ভাড়া দিতে চাচ্ছেন না বলে অভিযোগ রয়েছে অনেকের। শিক্ষার্থীদের বক্তব্য যেখানে পরীক্ষার জন্য এনরোলমেন্ট ফি দিতেই হিমশিম খেতে হয়, সেখানে এক মাসের পরীক্ষা দিতে ছয় মাসের চুক্তিতে মেস ভাড়ার টাকা পাওয়া একেবারেই অসম্ভব।

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/ব্রিজ

Categories: শিক্ষা

Leave A Reply

Your email address will not be published.