শুক্রবার ৩ বৈশাখ, ১৪২৮ ১৬ এপ্রিল, ২০২১ শুক্রবার

মায়ের কল্যাণে শাস্তি কমতে যাচ্ছে শাহাদাতের

অনলাইন ডেস্ক:-বিভিন্ন সময় বিতর্কিত ঘটনা ঘটিয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন পেসার শাহাদাত হোসেন রাজীব। প্রথমে শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতন করে সমালোচনায় পড়েন তিনি। এরপর মাঠে সতীর্থকে মারধর করে সমালোচনার জন্ম দেন এই ক্রিকেটার। আর এসব কাণ্ড ঘটিয়ে শাস্তির মুখেও পড়েন তিনি। 

খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) শেষ রাউন্ডের ম্যাচে ঢাকার পেসার শাহাদাত তার সতীর্থ ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ আরাফাত সানিকে (জুনিয়র) বলের এক পিঠ ঘষে দিতে বলেছিলেন। তবে ২৪ বছর বয়সী আরাফাত ঠিকভাবে বল ঘষে দিতে পারবেন না বলে জানালে চটে যান শাহাদাত। খেলার মাঝেই তিনি আরাফাতকে চড় থাপ্পড় মারতে শুরু করেন। 

সতীর্থকে লাঞ্ছিত করে ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা এবং ৩ লাখ টাকা জরিমানা গুনতে হয় শাহাদাতকে। শাহাদাতের সেই নিষেধাজ্ঞা এখনো চলছে। তবে এ যাত্রায় ক্যান্সার আক্রান্ত মায়ের কারণে নিষেধাজ্ঞা থেকে রেহাই পেতে যাচ্ছেন তিনি। মানবিক কারণে তার শাস্তি মওকুফ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সোমবার (৮ মার্চ) বিসিবি সূত্রে এমনটাই জানা গেছে।  

মায়ের চিকিৎসার ব্যয় বহন করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে উল্লেখ করে এ ক্রিকেটার সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলেন, আবারও ক্রিকেটে ফিরতে চাই। মায়ের জন্য, পরিবারের জন্য, নিজের জন্য।’

জরায়ু ক্যানসারে আক্রান্ত শাহাদাত হোসেন রাজিবের মা। নিষেধাজ্ঞার কারণে দুই বছর ধরে খেলতে না পারায় তার হাতে টাকা-পয়সাও নেই। ক্রিকেট ছাড়া তার বিকল্প রোজগারও নেই। তাই মায়ের চিকিৎসার জন্য নিজের গাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন বলে জানান এ ক্রিকেটার। 

তাই শাহাদাতের খেলার আবেদন নিয়ে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান জানান, ‘নিষেধাজ্ঞা মওকুফের জন্য চিঠি দিয়েছে সে। যেহেতু ও পারিবারিকভাবে সমস্যায় পড়েছে তাই ইতিবাচক একটা সিদ্ধান্ত নেবো আমরা।’

শাহাদাত বাংলাদেশের হয়ে ৩৮টি টেস্ট, ৫১টি ওয়ানডে ও ৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। ২০১৫ সালের পর তাকে আর জাতীয় দলে দেখা যায়নি। 

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/আয়েশা

Categories: খেলাধূলা

Leave A Reply

Your email address will not be published.