বৃহস্পতিবার ১৯ ফাল্গুন, ১৪২৭ ৪ মার্চ, ২০২১ বৃহস্পতিবার

মুক্তি পেয়েছে প্রয়াত অভিনেত্রীর শেষ ছবি, কাঁদলেন মা–বাবা

অনলাইন ডেস্ক : বড় মেয়ে তরুণ অভিনেত্রী ও মডেল লোরেন ম্যান্ডেস মারা গেছেন পাঁচ মাস চলছে। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে তাঁর অভিনীত ওয়েব ফিল্ম ‘ট্রল’। মেয়ের মৃত্যুর এত মাস পর মুক্তি পাওয়া ছবিটি দেখতে বসে কাঁদলেন মা মার্গারেট ম্যান্ডেস ও বাবা ব্লিন ম্যান্ডেস। সোমবার রাতে তাঁরা সপরিবার ছবিটি দেখেন। অনেক কষ্টে ছবিটি দেখা শেষ করেন। প্রথম আলোকে জানিয়েছেন সদ্য প্রয়াত মডেল ও অভিনেত্রী লোরেন ম্যান্ডেসের মা মার্গারেট ম্যান্ডেস।

লোরেনের ছোট দুই যমজ বোন লারিনা ও লারিশা। তারা এখনো জানে না, তাদের বড় বোন মারা গেছে। তাই তো ছবিটি দেখতে বসে বারবার মা–বাবার কাছে বোন লোরেন কবে বাসায় ফিরবে জিজ্ঞেস করছিল। গত বছরের ৩০ আগস্ট আত্মহত্যা করেন লোরেন।৯০ মিনিট ব্যাপ্তির ওয়েব ফিল্ম ‘ট্রল’ সম্প্রতি অনলাইনে মুক্তি পেয়েছে। এই ছবিতে অপূর্বর ছোট বোনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন লোরেন। মেয়ে লোরেন অভিনীত ছবিটি মুক্তির খবর তাঁরা জানতেন। কিন্তু সাহস করতে পারছিলেন না ছবিটি দেখার। কারণ, মেয়েকে হারানোর শোক এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেননি তাঁরা।

সিনেমাটি নিয়ে মা–বাবার সঙ্গে লোরেনের অনেক স্মৃতি রয়েছে। মা জানালেন, এই ছবির শুটিং থেকে কখনো রাত একটায়, কখনো দুইটায় বাসায় ফিরতেন লোরেন। এসেই শুটিংয়ের নানা গল্প পরিবারের সবাইকে শোনাতেন। চুপি চুপি মাকে ও ছোট দুই বোনকে এ–ও নাকি বলেছিলেন, তাঁর জীবনের সেরা কাজ হয়ে থাকবে। মেয়ের সেই কাজ মুক্তির পরে না দেখে কি আর থাকতে পারেন মা–বাবা আর ছোট বোনেরা! লোরেনের মেজ বোন ম্যাকডেলিনা ম্যান্ডেস। তিনি কানাডায় পড়াশোনা করেন। লোরেনের মা জানান, তাঁর মেজ মেয়ে বোনের সিনেমাটি দেখেছেন। ছোট দুই মেয়েকে নিয়ে ছবিটি দেখতে বসেছিলেন তাঁরা। সিনেমাটি দেখে আবার পরিবারের সবাই কেঁদেছে। শুধু কাঁদেনি ছয় বছরের লারিশা ও লারিনা।

‘ট্রল’ সিনেমায় লোরেনের শৈশবের চরিত্রে অভিনয় করেছেন লারিনা। ছবিটি দেখার সময় লারিনা ও লারিশা বারবার বোনের অংশটুকু দেখছিল। তারা জানে তাদের বোন এখনো বেঁচে আছেন। তারা বিশ্বাস করে, তাদের লোরেন দিদি ফিরে আসবেন। তারাও মা–বাবার কাছে জানতে চায়, কবে দিদি ফিরে আসবেন। ছোট দুই মেয়ের কাছে এমন কথা শুনে লোরেনের মা–বাবা নিঃশব্দে কাঁদতে থাকেন বলে জানালেন। কান্নাজড়িত কণ্ঠে লোরেনের মা বললেন, ‘লোরেন যে মারা গেছে, সেটা ছোট দুই মেয়েকে আজও বলা হয়নি। ওরা জানে, তাদের বোন বাইরে গেছে, ফিরে আসবে। তাদের অনেক আদর করবে।’

আত্মহত্যার ঠিক দুই দিন আগে ‘ট্রল’ ছবিতে অভিনয় করেন লোরেন। সঞ্জয় সমদ্দার পরিচালিত এই ছবির প্রথম দিনের শুটিংয়ে সঙ্গে গিয়েছিলেন তাঁর মা মার্গারেট ম্যান্ডেস।

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/ব্রিজ

Categories: বিনোদন

Leave A Reply

Your email address will not be published.