বৃহস্পতিবার ১৯ ফাল্গুন, ১৪২৭ ৪ মার্চ, ২০২১ বৃহস্পতিবার

নতুন পথ চলার অঙ্গীকার, ‘আওয়াজ একটাই—বাংলাদেশ।’

অনলাইন ডেস্ক:আরেকটি নতুন সকাল। নতুন সূর্যের আলোর রোশনাইয়ে নতুন করে পথ চলা। যে পথ অনেকটাই কন্টকাকীর্ণ, অনেকটাই ঝাঁঝালো। তবুও সে পথ পাড়ি দিতে হবে। অজেয়কে জয় করতে হবে। নতুনের কেতন উড়তে হবে।

পঞ্চাশ ওভারের ক্রিকেট বাংলাদেশের সবচেয়ে গর্বের নাম। সেই গর্বের রূপকার মাশরাফি বিন মুর্তজা। যার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ার কার্যত ফুলস্টপ পড়ে গেছে। সাফল্যমন্ডিত ক্যারিয়ারে যিনি বাংলাদেশকে ৫০ জয় উপহার দিয়েছেন। তাকে ছাড়াই বুধবার সকালে ওয়ানডে ক্রিকেটে নতুন পথে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

৩১৩ দিনের দীর্ঘ বিরতিতে বাংলাদেশ ফিরছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। বিরতি দিয়ে ক্রিকেটে ফিরে বাংলাদেশ ক্রিকেটে পালাবাদলের সুর। নতুনের আহ্বান। যেখানে অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফি যুগের পর পথ চলা শুরু করবেন তামিম ইকবাল। দেশসেরা ওপেনার দায়িত্ব পেয়েছেন ১০ মাস আগে। কিন্তু করোনার কারণে মাঠে নামতে পারেননি। এবার মাঠে নামার আগেই ঘোষণা দিলেন, ‘ক্রিকেটে বাংলাদেশের নিজস্ব ব্র্যান্ড চালু করতে চান।’ সেটা কেমন হতে পারে সেই ধারণা আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নতুন পথ চলায় জানা যাবে।

সকাল ১১টায় তামিম টস করতে মিরপুরের সবুজ গালিচায় পা রাখবেন। তার সঙ্গী হবে জেসন মোহাম্মদ। করোনা আতঙ্কে বঙ্গদ্বীপে সফরে আসেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনেক সিনিয়র ক্রিকেটার। অনভিজ্ঞ দলের অধিনায়ক জেসন যিনি দলে ফিরেছেন দুই বছর পর।

অধিনায়ক তামিমের প্রথম পরীক্ষার দিনে বাংলাদেশ যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে ‘আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগ’। সোজা ভাষায়, ২০২৩ বিশ্বকাপে সরাসরি অংশগ্রহণ করার লড়াই। আগামী দুই বছরে ২৪টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। প্রতিটি ওয়ানডের জন্য বরাদ্দ ১০ পয়েন্ট। ম্যাচ জিতলে বিজয়ী দল পাবে ১০ পয়েন্ট। ম্যাচ টাই বা পণ্ড হলে সমান ৫ পয়েন্ট করে পাবে দুই দল। এভাবে পয়েন্ট প্রক্রিয়ায় এগিয়ে যাবে বিশ্বকাপ সুপার লিগ। ২০২৩ বিশ্বকাপে খেলার জন্য বাছাই পর্ব এড়াতে চান তামিম। এজন্য কোনও সুযোগ হাতছাড়া করতে চান না বাঁহাতি ওপেনার। শুরুতেই তামিম পেয়েছেন সহজ প্রতিপক্ষ। তাইতো তার নজরও ৩০ পয়েন্টে।

তবে নতুন পথ চলায় তামিম শুরুতে বেশ সতর্ক। দীর্ঘদিন পর মাঠে নামার কারণ অনভ্যস্ততা থাকতে পারে। এজন্য আজকের ম্যাচে তামিম বেশ মনোযোগী, ‘সিরিজ জেতা অবশ্যই জরুরি। কিন্তু আমার যেটা মনে হয় বুধবারের ম্যাচে শুরু করাটা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমরা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রায় এক বছর পরে ফিরছি। প্রথম ৫ ওভার বোলিং বা ব্যাটিং ভালো শুরু জরুরি। এরপরে সবই জেতার চেষ্টা করা যাবো, কিন্তু সবার আগে কালকের খেলায় মনোযোগ দিচ্ছি।’

নতুন অধিনায়ক, কোচিং স্টাফও প্রায় নতুন। তাইতো পরিকল্পনা ও ভাবনাতেও এসেছে পরিবর্তন। এ সিরিজ দিয়ে বাংলাদেশ শুরু করতে যাচ্ছে ‘ভিশন ২০২৩’। ভারতে অনুষ্ঠিত ২০২৩ বিশ্বকাপের পরিকল্পনা ও ঝালাইয়ের কাজ শুরু হচ্ছে এ সিরিজ দিয়ে। পুরোনো অনেক কিছুতেই পরিবর্তন এনেছে টিম মেনেজমেন্ট। ২০১৯ বিশ্বকাপে তিনে ব্যাটিং করে ৬০৫ রান পাওয়া সাকিবের ঠিকানা এখন চার নম্বর। টপ অর্ডারে ব্যাটিং করে অভ্যস্ত সৌম্যর ঠিকানা সাতে। তাকে দেওয়া হয়েছে ফিনিশারের ভূমিকায়।

বোলিংয়ে মোস্তাফিজের সঙ্গী শরীফুল, হাসান মাহমুদদের মতো প্রতিশ্রুতিশীল পেসার। রুবেল, তাসকিনের অভিজ্ঞতা তো আছেন। সাকিবের স্পিন ভেল্কির সঙ্গে মেহেদী হাসান মিরাজ ও মাহেদী হাসানও রয়েছেন। একমাত্র পেস অলরাউন্ডার সাইফ উদ্দিন তো ভরসার আরেক নাম।

প্রায় এরকমই এক দল ২০১৫ বিশ্বকাপের আগে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পেয়েছিলেন মাশরাফি। জিম্বাবুয়েকে ৫-০ ব্যবধানে হারিয়ে শুরুর পর ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলে মাশরাফির বাংলাদেশ। এরপর ঘরের মাঠে পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ জয়। ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনাল। ২০১৯ বিশ্বকাপের আগে প্রথম ত্রিদেশীয় ট্রফিসহ আরো কত অর্জন।

সবচেয়ে সফল নেতার অনুপস্থিতিতে তামিমের নেতৃত্বে নতুন পথ চলায় বাংলাদেশ। সঙ্গে ওরা স্কোয়াডের ১৭জন। পেছন থেকে মাশরাফির সঞ্জিবনী বার্তা তো আছেই, ‘আওয়াজ একটাই—বাংলাদেশ।’

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/আয়েশা

Categories: খেলাধূলা,শীর্ষ সংবাদ

Leave A Reply

Your email address will not be published.