মঙ্গলবার ১২ শ্রাবণ, ১৪২৮ ২৭ জুলাই, ২০২১ মঙ্গলবার

মায়ের কোল থেকে শিশু চুরি: শিশুর ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক: একটি শিশুর জন্য পৃথিবীর সবচেয়ে নিরাপদ স্থান হলো মায়ের কোল। আর সেই মায়ের কোল থেকেই শিশুকে চুরি করে দুর্বৃত্তরা নৃসংশভাবে হত্যা করেছে। অসহায় মা পাগলের মত চিৎকার করে তার কোলের ধনকে খুঁজে বেড়াচ্ছেন। পরে পুলিশ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পাশে শিশুটির ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে। ঘটনাটি রাজধানীর গুলিস্থানের বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম এলাকায় গত শনিবার (০৯ নথেম্বর) রাতে ঘটেছে। পুলিশ জানিয়েছে, ঘুমন্ত অবস্থায় মায়ের কোল থেকে সাদ্দাম হোসেন (৬) নামের শিশুটিকে চুরি করে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পর গত রবিবার (১০ নভেম্বর) রাত ১০টার দিকে পুলিশ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পাশে একটি বহুতল ভবনের সামনে থেকে বস্তার ভেতর তোষক দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় ওই শিশুর লাশটি উদ্ধার করে। প্রাথমিক তদন্ত শেষে পল্টন থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক বলেন, শনিবার রাতে বৈরি আবহাওয়ার মধ্যে গুলিস্তান স্টেডিয়াম এলাকায় শিশুটি মায়ের সঙ্গে ঘুমিয়ে ছিল। ওই সময়ই তাকে মায়ের কোল থেকে কৌশলে চুরি করে অন্য কোথাও নিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এরপর রবিবার রাতে পল্টনে অলিম্পিক ভবনের পাশের মোড় থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। এতটুকু শিশুরতো কোন শক্রু নেই জানিয়ে ওসি বলেন, কি কারণে কেন শিশুটিকে হত্যা করা হয় তা এখনও পরিস্কার নয়। ঘটনার তদন্ত চলছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শিশু সাদ্দামের বাবার নাম সাগর শেখ। তিনি বর্তমানে জেলে রয়েছেন। মা ঝর্ণা বেগম গুলিস্তান এলাকায় ভবঘুরে জীপনযাপন করেন। ঝর্ণার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কোথাও থাকার জায়গা না থাকায় তিনি ছেলে সাদ্দামকে নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়াতেন। মানুষের কাছ থেকে দু-চার টাকা নিয়ে চলতেন। তিনি গুলিস্তানের বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম এলাকায় (তিন নম্বর গেটে) থাকতেন। প্রতিদিনের মত সেইদিনও তিনি শিশুটিকে নিয়ে ওই এলাকাতেই ঘুমিয়ে ছিলেন। শনিবার রাত ১০টা থেকে শিশুটিকে না পেয়ে তিনি অসহায়ভাবে পুরো এলাকায় পাগলের মত খুঁজতে থাকেন। এভাবে সারারাত সন্তানের খোঁজে নির্ঘুম রাত কাটান। একই ভাবে রবিবার দিনভর খোঁজার পর ছেলেটির কোন সন্ধান পাননি তিনি। এক পর্যায়ে পুলিশ রবিবার রাত ১০টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে। তদন্ত সংশিষ্ট সূত্র জানায়, এ ঘটনায় শিশুটির মা ঝর্ণা বেগম বাদি হয়ে অজ্ঞাতনাম কয়েকজনকে আসামি করে পল্টন থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনায় সন্দেহভাজন কয়েকজনকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তবে তারা কেউই শিশুটি হত্যার দায় স্বীকার করেনি। ঝর্ণাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পেরেছে, শনিবার রাতে বৈরি আবহাওয়ার কারণে প্রচন্ড বৃষ্টি ছিল। এর মধ্যেই তিনি শিশুটিকে নিয়ে স্টেডিয়াম এলাকায় ঘুমিয়ে ছিলেন। রাত সাড়ে ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে ঘুমন্ত অবস্থায় মায়ের কোল থেকে দুর্বৃত্তরা শিশুটিকে চুরি করে নিয়ে যায়। এদিকে গত সোমবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। লাশের সুরতহাল প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুটির মাথার ডান পাশের কানের কাছে কিছুটা থেঁতলানোর আঘাত ও গলায় শ্বাসরোধের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিশ ধারনা করছে, ঘটনাটি পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ঘটতে পারে। শিশুটির বাবা-মায়ের সঙ্গে বিরোধ, স্বার্থ সংশ্লিস্ট দ্বন্দ্ব বা শিশুটি যে এলাকায় বসবাস করত সেখানকার কারো সঙ্গে মায়ের বিরোধের কারনেই তাকে হত্যা করা হতে পারে। হত্যাকাণ্ডে জড়িতরাও ভবঘুরে কেউ হতে পারে। বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস/আহসান শিপু

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.