মঙ্গলবার ১০ বৈশাখ, ১৪২৬ ২৩ এপ্রিল, ২০১৯ মঙ্গলবার

পারজোয়ার ব্রাহ্মনগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় নব নির্মিত ভবন উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: ২৪ ফেব্রুয়ারি শনিবার বিকাল ৩ টায় পারজোয়ার ব্রাহ্মনগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর ক্রীড়া প্রতিযোগিতা পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ও নব নির্মিত ভবন শুভ উদ্বোধন করেন বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু-এমপি।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে কোরআন তেলওয়াত করেন মাওলানা আলী হোসাইন ও গীতা পাঠ করেন শিক্ষক গোপন মোদক। মানপত্র পাঠ করেছেন বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্রী লিজা আক্তার। ২১ ফেব্রুয়ারি ও স্বাধীনতা যুদ্ধের উপরে একটি কোরিওগ্রাফি উপস্থাপন করা হয়।

পরবর্তীতে মন্ত্রী মহোদয়কে ফুল দিয়ে বরণ ও শুভেচ্ছা স্বরূপ হিসেবে ক্রেস্ট প্রদান করেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ পারভেজ হোসেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নুরুল আমীন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ক্রীড়া শিক্ষক জাহিদুল ইসলাম। নৃত্য ও সংগীত পরিচালনায় ছিলেন শিক্ষক গোপন মোদক ও শিক্ষক জসীম উদ্দিন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কেরাণীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ, কেরাণীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহে এলিদ মাঈনুল আমিন, কেরাণীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নিলুফার জাহান, কেরাণীগঞ্জ উপজেলা সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল মতিন, কেরাণীগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার মাজেদা সুলতানা, কোন্ডা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান ফারুক চৌধুরী, কোন্ডা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আবুল হোসেন রতন ও কোন্ডা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাফর ইকবাল (বাপ্পী)। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অত্র বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ পারভেজ হোসেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ বলেন, আমাদের মধ্যে দেশপ্রেম থাকতে হবে। আমাদের ছাত্র-ছাত্রীদেরকে আরোও অগ্রসর হতে হবে। তিনি আরো বলেন, আজ থেকে ১০/১২ বছর আগে ফিরে গেলে মনে হতো কেরাণীগঞ্জ একটি অবহেলিত উপজেলা। বর্তমানে কেরাণীগঞ্জ উপজেলায় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রয়েছে যা বিগত সরকারের আমলে কখনোই দেখা যায়নি। তাই এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে নসরুল হামিদ বিপু’কে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নসরুল হামিদ বিপু বলেন, এবার ২১ ফেব্রুয়ারিতে ফুল দিতে জাতীয় শহীদ মিনারে গিয়েছিলাম সেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতি উপস্থিত ছিলেন। আমাদের ছেলে-মেয়েদের বাংলা একাডেমীতে একুশে ফেব্রুয়ারিতে কি হয়েছিলো প্রশ্ন করলে অনেকেই উত্তর দিতে পারেনা। এরকম প্রত্যেকটি স্কুলে ২১ ফেব্রুয়ারি ও স্বাধীনতা বিষয়ক অনুষ্ঠান হলে আমাদের নতুন প্রজন্ম কিছু জানতে পারবে এবং শিখতে পারবে। দশটা খারাপ লোকের চেয়ে একটি ভালো লোক অনেক ভালো এবং মানুষ তার কাছ থেকে কিছু শিখতে পারে ও তার আশ্রয়ে ন্যায় বিচার আশা করে। আমি চেষ্টা করি সত্যের পথে থাকতে। আমাদের দেশনেত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে নৌকায় ভোট দিয়ে তাকে জয়যুক্ত করার আহবান জানান। তিনি তার বক্তব্যে ব্রাহ্মনগাঁও একটি কলেজ করার আশ্বস্ত প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন, যদি আবার বিএনপি’কে ক্ষমতা দেয় জনগন তাহলে পদ্মাসেতুর রড বিক্রি করে খেয়ে ফেলবে তারেক রহমান।

উক্ত অনুষ্ঠানে শিক্ষকমন্ডলীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ মোজাম্মেল হক, বিদ্যালয়ের প্রবীন শিক্ষক রনজিৎ মোদক, সিনিয়র শিক্ষক মোহিনীচন্দ্র মন্ডল, হাজী মোঃ মমিনুল হক, মোঃ জসিম উদ্দিন, মোঃ জাকির হোসেন, মীর্জা মোঃ তাজুল ইসলাম, মোঃ শাহালম, মোঃ ওমর ফারুক, মোঃ ইকবাল হোসেন, ফেরদৌসী বেগম, মিতু রানী, রুনা আক্তার, নুরুন্নাহার বেগম, হোসনে আকতার, সোনিয়া কামাল ও বিথীকা খাঁ। সমাপনী অনুষ্ঠানে পুরস্কার বিতরণ করা হয় ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে।

বিষেরবাঁশী.কম/ সংবাদদাতা/ হীরা

 

Categories: শিক্ষা,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.