মঙ্গলবার ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ ২২ মে, ২০১৮ মঙ্গলবার

জামান সৈয়দী পুলক ঘটককে কেন সমর্থন দিলেন?

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: দৈনিক ইনকিলাবের চাকুরিচ্যুত সাংবাদিকদের একজন জামান সৈয়দী (Zaman Saiyedi)। ডিইউজে নির্বাচনে তিনি আমার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন। ফেসবুকে তিনি লিখেছেন: “সাংবাদিকদের পেটে লাথি মেরে মালিকদের সাথে হাত মিলিয়ে যারা নিজ স্বার্থকে বড় করে দেখে, সাংবাদিকদের কষ্টের সময় যারা রাজপথে কিংবা পাশে থাকে না, তাদের পরাজয় কামনাই করবো সব সময়…। সাংবাদিকরা যেন বিশ্বাস ভঙ্গকারীদের ভোট না দেয় এ আহ্বান থাকল।”

জামান সৈয়দী ইনকিলাবে ১৭ বছর চাকুরি করেছেন। সর্বশেষ মফস্বল সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বকেয়া ২০ মাসের বেতনসহ ইনকিলাব কর্তৃপক্ষের কাছে তার মোট পাওনা ৫৭ লাখ টাকা। তিনি এবং তার মত ৬৭ জন সাংবাদিক-কর্মচারী (৩৭ জন সাংবাদিক, যাদের ১৭ জন আমাদের ইউনিয়নের সদস্য) তাদের যৌবণের সামর্থ্য একটি প্রতিষ্ঠানের জন্য ক্ষয় করে মধ্য বয়সে এসে খালি হাতে সেখান থেকে বিদায় নিয়েছেন। তারা পাওনা আদায়ের জন্য ডিইউজে এবং বিএফইউজে নেতাদের দারস্থ হয়েছিলেন। আন্দোলন করতে গিয়ে উপরি পাওনা হিসেবে মার খেয়েছেন।

সারাদেশের বিভিন্ন সংবাদক্ষেত্রে কর্মরত সাংবাদিক-কর্মচারীদের অবস্থা ইনকিলাবেরই অনুরুপ। আমাদের এই চাকরিক্ষেত্র আমাদের জন্য নিরাপদ নয়। পরিবর্তন আনয়নের জন্য সু-নেতৃত্ব এবং সাংবাদিক সমাজের ঐক্য জরুরি। ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে আমাকে ভোট দেবেন নাকি অন্য কাউকে ভোট দেবেন সেটা ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্যদের নিজস্ব বিবেচনার বিষয়। আমার শুধু একটাই নিবেদন: যাকে ভোট দেবেন তার ইউনিয়ন কর্মকান্ড সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে তারপর সিদ্ধান্ত নেবেন। ব্যক্তিগতভাবে আমি আপনাদের কাছে (সাধারণ সম্পাদক পদে) ভোটের জন্য আবেদন জানাচ্ছি।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.