শুক্রবার ২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ শুক্রবার

শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর সাথে লিয়াজোঁ ফোরাম নেতৃবৃন্দের তৃতীয় দফা বৈঠক

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: এমপিওভূক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ জাতীয়করণের একদফা দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনের রাজপথে প্রচন্ড শীতের মধ্যেও আজ আমরণ অনশনের ১০ম দিন পার করছেন হাজার হাজার বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারি। গত ১০ জানুয়ারি হতে শুরু হওয়া অবস্থান কর্মসূচির পর ১৫ জানুয়ারি হতে শুরু হওয়া আমরণ অনশন কর্মসূচিতে জাতীয়করণের একদফা দাবিতে সারা দেশ হতে হাজার হাজার শিক্ষক-কর্মচারি প্রতিদিন যোগ দিচ্ছেন। পূর্ব ঘোষিত সিদ্ধান্ত মোতাবেক সারা দেশের গতকাল বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে ধর্মঘট পালিত হয়েছে। দেশের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোর ৮৫% প্রতিষ্ঠানে এই ধর্মঘট পালিত হয়েছে। ধর্মঘট কর্মসূচিটি সফল ভাবে পালন করার জন্য লিয়াজোঁ ফোরামের নেতৃবৃন্দ সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন। লিয়াজোঁ ফোরামের ১০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল আজ দুপুর ২.৩০ মিনিটে মাননীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর দপ্তরে শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয় করণের দবিতে মাননীয় প্রতিমন্ত্রীর সাথে আলোচনায় বসেন। তিনি নেতৃবৃন্দকে আশ^স্ত করেছেন, তিনি এ ব্যপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে জাতীয় সংসদে আলোচনা করবেন এবং আলোচনার ফলাফল নেতৃবৃন্দকে জানাবেন।
৬টি শিক্ষক-কর্মচারি সংগঠনের জোট “বেসরকারি শিক্ষা জাতীয়করণ লিয়াঁজো ফোরাম” এর নেতৃবৃন্দ ২৩, ২৪ ও ২৫ জানুয়ারি সারাদেশের সকল বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধর্মঘট আহবান করেছেন, একই সাথে প্রেসক্লাবের সামনে চলবে আমরণ অনশন। আজ ধর্মঘটের ২য় দিনে দেশের বেশিরভাগ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ছিল। একটানা অনশনে এবং প্রচন্ড শীতে আজ আরো ৯জন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পরেন, এদের মধ্যে শেরপুরের রেখা আক্তার, বি বাড়িয়ার আব্দুল হাকিমসহ ৪ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এপর্যন্ত মোট অসুস্থ ১২৪ জন।
গতকাল পুনরায় শিক্ষকদের আন্দোলনের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন বীরমুক্তিযোদ্ধা বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। তিনি বেসরকারি শিক্ষদের সাথে রাজপথে বসে সংহতি প্রকাশ করেন। গত রবিবার বেসরকারি শিক্ষকদের জাতীয়করণের এই দাবির সাথে একাত্মতা ও সংহতি প্রকাশ করেন জাসদ এর সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তার (এম.পি)। তিনি বলেন স্বাধীনতার মূলমন্ত্রের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল শিক্ষা ব্যবস্থার জাতীয়করণ। তাই তিনি বর্তমান শিক্ষাবান্ধব সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে শিক্ষকদের এই দাবি মেনে নেওয়া উদাত্ত আহ্বান জানান। গত রবিবারে আরো সংহতি প্রকাশ করেছিলেন গণফোরাম সভাপতি, সংবিধান প্রণেতা, আইনজ্ঞ ড. কামাল হোসেন, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি।
আমরণ অনশন কর্মসূচির বিভিন্ন পর্যায়ে বক্তব্য রাখেন, জোটের আহবায়ক মো. আব্দুল খালেক, উপদেষ্টা মো. আবুল বাসার হাওলাদার, মো. জসিম উদ্দীন, মো. রফিকুল ইসলাম, মো. নজরুল ইসলাম রনি, মো. রফিকুল ইসলাম মন্টু, যুগ্ম আহবায়ক সাইদুল হাসান সেলিম, জি এম শাওন, মতিউর রহমান দুলাল, মোস্তফা ভূইয়া, আবুল হোসেন মিলন, প্রেস সচিব মো. এনামুল ইসলাম মাসুদ, বিপ্লব কান্তি দাস, (সহ-সভাপতি, বাবেশিকফো), আমিনুল ইসলাম (সহ-সভাপতি, বাবেশিকফো), হারুন-অর-রশিদ (সহ সভাপতি, বাবেশিকফো), অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম(যুগ্ম মহাসচিব, বাবেশিকফো), রেহান উদ্দিন (যুগ্ম মহাসচিব, বাবেশিকফো), রবিউল ইসলাম (কুমিল্লা), সোহেলী পারভিন (যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক বাবেশিকফো), মোঃ নুরুল ইসলাম (আইসিটি সম্পাদক, বাবেশিকফো), আঃ হালিম (ঢাকা দক্ষিণ), সুচিত্রা চৌধুরী, জ্যোতিষ মজুমদার (সিলেট), আফরোজা খাতুন মিনু (সিরাজগঞ্জ), জেলা-উপজেলা থেকে আগত বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

বিষেরবাঁশী.কম/ সংবাদদাতা/ হীরা

Categories: জাতীয়,শিক্ষা

Leave A Reply

Your email address will not be published.