বুধবার ৪ আশ্বিন, ১৪২৫ ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বুধবার

মানবঢাল হয়ে মেয়রকে রক্ষা করেছেন যারা

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জ শহরে হকার ইস্যুকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার এমপি শামীম ওসমান ও নাসিক মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর সমর্থকদের মধ্যে ঘন্টাব্যপি ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনার পর থেকে সর্বত্র আলোচনায় আইভীকে রক্ষার ‘মানবঢাল’। সংঘর্ষে আইভীর সঙ্গে আসা সাধারণ লোকজনদের অনেকেই নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যায়। কিন্তু ইট বৃষ্টি ও গোলাগুলি উপেক্ষা করে একটি অংশ আইভীকে চারপাশ থেকে মানবঢাল হয়ে ঘিরে রাখে। আহত হতে থাকে মানবঢালের লোকজন। ইট আর কাঠের আঘাতে আহতের সংখ্যা বাড়তে থাকে। মানবঢালের লোকজনও কমতে থাকে। কিন্তু রক্তাক্ত হয়েও অনেকেই মেয়র আইভীকে ছেড়ে যাননি। আইভীর শরীরে আঘাত লাগতে দেননি। যদিও শুরুতে একটি ইটের আঘাতে মেয়র পায়ে ব্যাথা পান। ভয়াবহ পরিস্থিতির শেষ মূহুর্তে পুলিশ টিয়ার সেল ও ফাঁকা গুলি করলে হামলাকারীরা পিছু হটে। পরে মানবঢালের লোকজন মেয়রকে নিয়ে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে প্রবেশ করেন।

এই ঘটনায় সারা নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশে আলোচিত হয় আইভীকে রক্ষার মানবঢাল। যেমনটা হয়েছিল ২০০৫ সালে আওয়ামীলীগ অফিসের সামনে আওয়ামীলীগ সভানেত্রী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপর গ্রেনেড হামলার দিন। ওই দিন নেতাকর্মীরা প্রিয় নেত্রীকে জীবন বাজি রেখে মানবঢাল তৈরী করে রক্ষা করেছিলেন। আইভীকে রক্ষাকারী মানবঢালের আহতরা হলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান, আইভীর ব্যক্তিগত বডিগার্ড পুলিশ সদস্য শফিকুল মল্লিক, নাগরিক কমিটির সদস্য সুজিত সরকার, নাসিকের কর্মকর্তা আলমগীর হিরন, যুবলীগ নেতা কামরুল ইসলাম বাবু, কবির টিটু, হাসান জাফরুল বিপুল, হিমেল খান, হারুন সরকার, রুবেল ইসলাম, শরীফ হিরা, আব্দুল মোতালিব প্রমুখ। এছাড়া কয়েকজন সাংবাদিকও মানবঢালের চারপাশে ছিলেন। এরমধ্যে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম ও সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিন সবুজ আহত হয়েছেন।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.