বুধবার ৩০ কার্তিক, ১৪২৫ ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ বুধবার

শুভ জন্মদিন শাবনূর!

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: ‘চোখে যার কাজল নেই, এমনই কালো।’ যার ডাগর চোখ কথা বলে, প্রাণবন্ত অভিনয়ের মাধ্যমে যিনি সবার হৃদয় জয় করেছেন তিনি শাবনূর। ঢাকাই ইন্ডাস্ট্রিতে নিজেকে তিনি প্রতিষ্ঠিত করেছেন অনন্য এক অভিনেত্রী হিসেবে। আজ ১৭ ডিসেম্বর নন্দিত এই অভিনেত্রীর জন্মদিন। শুভ জন্মদিন শাবনূর!

ঢালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শাবনূরের ‘চাঁদনী রাতে’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিষেক। চলচ্চিত্রের পাক্কা কারিগর এতেহশাম রত্ন চিনতে ভুল করেন না। একটা সময় ছিল শাবনূর মানেই সুপারহিট ছবি! শাবনূর মানেই দর্শকের সেরা পছন্দ। নামের অন্তর্নিহিত অর্থ ‘রাতের আলো’র মত চলচ্চিত্রের আকাশে উজ্জ্বল তারা হয়ে আজো ঝলমল করছে তিনি। ৩৮তম জন্মদিন পার করলেন শাবনূর।
তিনি বেশ কয়েক বছর ধরে অভিনয় থেকে দূরে। তবু জন্মদিনের প্রথম প্রহরে তার বাসায় বসেছিল তারার হাট।

‘আনন্দ অশ্রু’র নায়িকা বলেন, ‘কী বলবো আমি খুব খুব খুশি হয়েছি আমার সব বন্ধু-বান্ধবরা আমাকে উইশ করেছে। তারা আমার জন্য বিশাল এক কেক নিয়ে এসেছিল।’

জন্মদিন নিয়ে কোন পরিকল্পনা নেই শাবনূরের। কারণ তার মা আছেন দেশের বাইরে অস্ট্রেলিয়াতে। মাকে ছাড়া পরিকল্পনা করে নিজের জন্মদিন উদযাপন করার কোন আগ্রহ নেই তার। তবে নিজের কোন পরিকল্পনা না থাকলেও সারাটি দিনজুড়েই নানাভাবে সারপ্রাইজ পেয়ে থাকেন জনপ্রিয় এ নায়িকা। বন্ধু’মহল থেকে শুরু করে সহকর্মী, ভক্ত, চলচ্চিত্রের নানান ব্যক্তিত্ব শাবনূরকে জন্মদিনে সারপ্রাইজ দিয়ে থাকেন।

নিজের জন্মদিন প্রসঙ্গে শাবনূর বলেন, ‘এই মুহূর্তে আম্মু নেই আমার পাশে। আগের বার অস্ট্রেলিয়াতে আম্মু এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা মিলে জন্মদিন উদ্যাপন করেছি। কিন্তু এবার কেউ পাশে নেই। তাই জন্মদিন নিয়ে কোন পরিকল্পনাও নেই। তাছাড়া কিছুদিন আগে আমি বেশ অসুস্থ ছিলাম। এখনো পুরোপুরি সুস্থ নই। সবমিলিয়েই কোন অনুষ্ঠান করা হচ্ছে না এবার। জন্মদিনে শুধু সবার কাছে দোয়া চাই যেন সুস্থ থাকি, আমার একমাত্র সন্তান আইজেনকে নিয়ে যেন ভালো থাকতে পারি।’

১৯৭৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর যশোর জেলার শার্শা উপজেলার নাভারণে জন্মগ্রহণ করেন শাবনূর। তার পর্দার পেছনের নাম নূপুর। প্রথম চলচ্চিত্র কিংবদন্তি পরিচালক এহতেশামের ‘চাঁদনী রাতে’। ১৯৯৩ সালের ১৫ অক্টোবর ‘চাঁদনী রাতে’ মুক্তি পায়। সাব্বিরের বিপরীতে অভিনীত চলচ্চিত্রটি ব্যবসায়িকভাবে ব্যর্থ হয়।
তবে শাবনূরের মুগ্ধতার ইতিহাস শুরু হয় ১৯৯৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত জহিরুল হক পরিচালিত ‘তুমি আমার’ ছবিটি দিয়ে। সালমান শাহের সঙ্গে জুটি বেঁধে এই নায়িকা ১৪টি ছবি করেন। তার সবগুলোই রেকর্ড সংখ্যকভাবে ব্যবসায়িক সাফল্য পায়।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: খেলাধূলা

Leave A Reply

Your email address will not be published.