সোমবার ৪ পৌষ, ১৪২৪ ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ সোমবার

তারেক মাসুদের পরিবারকে সাড়ে ৪ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ

     অনলাইন ডেস্ক: মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত খ্যাতিমান চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদের মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় তার স্ত্রীকে ৪ কোটি ৬১ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। আগামী ৩ মাসের মধ্যে বাসের মালিক, চালক ও বিমা কোম্পাণীকে এ ক্ষতিপূরণ পরিশোধ করতে হবে।

রোববার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে এ নির্দেশ দেন আদালত। গত বুধবার (২৯ নভেম্বর) সকালে প্রথম দিনের মতো দায়ের করা ক্ষতিপূরণ মামলার অসমাপ্ত রায় পড়া শুরু হয়।

তারেক মাসুদের সহধর্মিণী ক্যাথরিন মাসুদের করা আবেদনের ওপর গত ১৬ নভেম্বর শুনানি শেষে রায়ের দিন নির্ধারণ করা হয় ২৯ নভেম্বর। নির্ধারিত দিন সকালে রায় ঘোষণা শুরু করেন আদালত। এ সময় আবেদনকারী ক্যাথরিন মাসুদ, তাঁর আইনজীবী ড. কামাল হোসেন, ব্যারিস্টার সারা হোসেন আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

চুয়াডাঙ্গা বাস মালিকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আব্দুস সুবহান তরফদার এবং রিলায়েন্স ইনস্যুরেন্স কম্পানির পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার ইমরান এ সিদ্দিকী, ব্যারিস্টার ইহসান এ সিদ্দিকী, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির ও অ্যাডভোকেট আবু রায়হান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ইসরাত জাহান। মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার জোকা এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান তারেক মাসুদ, মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন।

এ ঘটনায় পুলিশ একটি মামলা করে। এ ছাড়া ঘটনার দেড় বছর পর ২০১৩ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি নিহতদের পরিবারের সদস্যরা মানিকগঞ্জে বাস মালিক, চালক ও ইনস্যুরেন্স কম্পানির বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চেয়ে দুটি মামলা করেন। মামলায় বাসচালক, বাস মালিক, রিলায়েন্স ইনস্যুরেন্স কোম্পানিসহ পাঁচ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে বিবাদী করা হয়।

মামলায় তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ প্রথমে সাত কোটি ৭৬ লাখ ২৫ হাজার ৪৫২ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে মানিকগঞ্জের আদালতে মামলা করেন। পরে ক্ষতিপূরণের দাবির পরিমাণ বাড়িয়ে প্রায় ১০ কোটি টাকা করা হয়। পরে মামলা দুটি জনস্বার্থে হাইকোর্টে বদলির নির্দেশনা চেয়ে তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ এবং মিশুক মুনীরের স্ত্রী কানিজ এফ কাজী ও ছেলে সুহৃদ মুনীর ২০১৩ সালের ১ অক্টোবর পৃথক দুটি আবেদন করেন।

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/নিঃতঃ

Categories: আইন-আদালত

Leave A Reply

Your email address will not be published.