সোমবার ৪ পৌষ, ১৪২৪ ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ সোমবার

পিলখানা হত্যা : অসমাপ্ত রায় পড়া শুরু

বিষেরবাঁশী ডেস্ক পিলখানা হত্যা মামলার রায়ের অংশ হিসেবে দ্বিতীয় দিনের মত পর্যবেক্ষণ জানাচ্ছে হাইকোর্ট। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি সংখ্যার দিক দিয়ে দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় এ মামলার আপিল শুনানিতে গঠিত হাইকোর্টের তিন সদস্যের বেঞ্চের কনিষ্ঠ বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার সোমবার সকাল ১০টা ৫৪ মিনিটে তার পর্যবেক্ষণের সংক্ষিপ্তসার পড়া শুরু করেন।

এরআগে রোববার সকালে রায় শুরুর পর বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকী তার হাজার পৃষ্ঠার পর্যবেক্ষণের সংক্ষিপ্তসার পড়ে শোনান। বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারক শওকত হোসেন জানিয়েছেন, বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদারের পর্যবেক্ষণ পড়া শেষে মূল রায় (আদেশের অংশ) ঘোষণা শুরু হবে। পর্যবেক্ষণ আলাদাভাবে দিলেও আসামিদের সাজার বিষয়ে তিন বিচারক সর্বসম্মত সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন বলে জানিয়েছেন বিচারক শওকত হোসেন।

২০০৯ সালে পিলখানায় বাহিনীর সদর দপ্তরে বিদ্রোহী জওয়ানদের হাতে মারা যান ৫৭ সেনা কর্মকর্তা। রক্তাক্ত সেই বিদ্রোহে বেসামরিক ব্যক্তিসহ মোট ৭৪ জন প্রাণ হারান। ঢাকার বাইরেও ছড়িয়ে পড়ে জওয়ানদের বিদ্রোহ। বিদ্রোহের মামলায় বিডিআর বাহিনীর বিশেষ আদালতে ৬ হাজার জওয়ানের কারাদণ্ডের পর পিলখানায় হত্যাকাণ্ডের মামলাটির বিচার শুরু হয় সাধারণ আদালতে।

ঢাকার জজ আদালত ২০১৩ সালে এ মামলার রায়ে ৮৫০ আসামির মধ্যে ১৫২ জনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ১৬১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়। এছাড়া ২৫৬ আসামিকে তিন থেকে ১০ বছর পর্যন্ত বিভিন্ন মেয়াদের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেয়া হয়। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের সাজা কার্যকরের অনুমতি (ডেথ রেফারেন্স) ও আপিল এরপর আসে হাইকোর্টে। শুনানি শেষ হওয়ার সাত মাস পর হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ গতকাল রায় দেয়া শুরু করে।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: আইন-আদালত

Leave A Reply

Your email address will not be published.