শুক্রবার ২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ শুক্রবার

পেপাল সার্ভিসে রেমিট্যান্স বাড়ার সম্ভাবনা

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: বিশ্বব্যাপী অনলাইন পেপাল পেমেন্ট সিস্টেম বাংলাদেশে চালু হওয়ায় রেমিট্যান্সপ্রবাহ বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পেপাল পেমেন্ট সিস্টেম জুম ইতোমধ্যেই বাংলাদেশে চালু হয়েছে। রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এম আতাউর রহমান প্রধান বলেন, যেকোনো অ্যাকাউন্ট হোল্ডার খুব সহজেই এখন অল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে পারেন। বিদেশে বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশিরা এখন এই বৈধ চ্যানেলে দেশে টাকা পাঠাতে উৎসাহিত হবে। তিনি বলেন, এই সেবার মাধ্যমে শুধু ফ্রিল্যান্সাররাই নন, অনাবাসী বাংলাদেশিরাও এই সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন এবং ঝামেলামুক্ত এই ইলেকট্রনিক চ্যানেল ব্যবহার করতে পারেন। এর ফলে দেশে রেমিট্যান্সপ্রবাহ বৃদ্ধি পাবে।

আইসিটি বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা এম আবু নাসের বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারি অনাবাসী বাংলাদেশি জুমের মাধ্যমে তাদের পেপাল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে সরাসরি ৪০ মিনিট থেকে দুই ঘণ্টার মধ্যে বাংলাদেশে তাদের ব্যাংক হিসাবে টাকা পাঠাতে পারবে। তিনি বলেন, বিশ্বে ২০৩টি দেশে পেপাল সুবিধা রয়েছে। এই ২০৩টি দেশের মধ্যে ২৯টি দেশে পেপাল পূর্ণাঙ্গ সেবা দিচ্ছে। ১০৩টি দেশের জন্য শুধু অন্তর্মুখী সুবিধা রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের জন্য এই সেবাটি যুক্তরাষ্ট্র থেকে চালু হয়েছে। দেশটি বংলাদেশের ৪৫ শতাংশ আউট সোর্সিং বাজার কাভার করেছে। শিগগিরই অন্যান্য দেশে বাংলাদেশের জন্য সার্ভিসটি সম্প্রসারণ করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ গত ১৯ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থেকে অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেম পেপালের জুম সার্ভিস উদ্বোধন করেন। জুম সার্ভিসের আওতায় রেমিট্যান্সের পরিমাণ এক হাজার মার্কিন ডলারের বেশি হলে ফ্রিল্যান্সাররা বিনামূল্যে এই সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন।

জুম সার্ভিসের আওতায় যে কেউ একসঙ্গে ১০ হাজার ডলার পাঠাতে পারবেন এবং গ্রাহকরা নয়টি বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে এই সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।ব্যাংকগুলো হলো সোনালী ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, উত্তরা ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, সিটি ব্যাংক ও ইসলামী ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, প্রবাসী শ্রমিকরা অক্টোবর মাসের প্রথম ১৩ দিনে ৫৬৬ দশমিক ৫৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছে। বিগত বছরের এ সময়ে রেমিট্যান্স এসেছিল, ১৪২ দশমিক ৬১ মিলিয়ন ডলার।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: অর্থনীতি,বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Leave A Reply

Your email address will not be published.