বুধবার ৩০ কার্তিক, ১৪২৫ ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ বুধবার

ময়লার স্তূপে খুন হওয়া শিশুর বাক্সবন্দি মরদেহ

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: চট্টগ্রাম নগরীতে ৯ বছর বয়সী এক মেয়েকে নৃশংসভাবে খুন করে মরদেহ কাঠের বাক্সে ভরে ফেলে গেছে দুর্বৃত্তরা। দুই দিন নিখোঁজ থাকার পর আজ বৃহস্পতিবার ভোরে সালমা আক্তার নামে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নগরীর পাঁচলাইশ থানার বাদুরতলায় নঈমিয়া ভবন নামে একটি মার্কেটের তিনতলায় ময়লার স্তূপে কাঠের বাক্সটি পাওয়া গেছে। ওই মার্কেটের অদূরে শাহ আমানত হাউজিং সোসাইটিতে সালমাদের বাসা। পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ওয়ালি উদ্দিন আকবর বলেন, সালমাকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার আগে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে কি না সেটি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। সুরতহাল প্রতিবেদন পাবার পর এই বিষয়ে বলা যাবে।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার দুপুরে বাদুরতলার একটি প্রি-ক্যাডেট মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী সালমা নিখোঁজ হয়। পরিবারের লোকজন বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি। বিষয়টি পাঁচলাইশ থানায় অবহিত করেন সালমার বাবা। বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৩টার দিকে নঈমিয়া ভবনের ওপরে একটি কাঠের বাক্স থেকে দুর্গন্ধ বের হবার খবর আসে পুলিশের কাছে। এরপর পুলিশের টিম গিয়ে কাঠের বাক্স খুলে সালমার মরদেহ দেখতে পায়। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নেওয়া হয়েছে।

পরিদর্শক ওয়ালি উদ্দিন জানান, কাঠের বাক্সের ভেতরে মৃত সালমাকে বসিয়ে রেখে সেটি ফেলে যায় দুর্বৃত্তরা। মরদেহ থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। এতে পুলিশ ধারণা করছে, মঙ্গলবারই তাকে হত্যা করা হয়েছে। নঈমিয়া ভবনের তিনতলা পরিত্যক্ত অবস্থায় থাকায় সাধারণত সেখানে কেউ যায় না বলে জানান ওয়ালি উদ্দিন। সালমার বাবা যমুনা বাস সার্ভিস নামে একটি দূরপাল্লার পরিবহন কম্পানির কর্মকর্তা। তাদের বাড়ি নোয়াখালী জেলায়। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান পরিদর্শক ওয়ালি উদ্দিন।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.