শুক্রবার ২৩ শ্রাবণ, ১৪২৭ ৭ আগস্ট, ২০২০ শুক্রবার

পিরোজপুরে সংখ্যালঘু নির্যাতন: ২’শ বছরের পুরনো শিব মন্দিরের জমি দখল

অনলাইন ডেস্ক: দেশে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে পিরোজপুর জেলায় একটি সম্ভ্রান্ত সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারের ২০০ বছরের পুরনো শিব মন্দিরের জায়গা (১০ শতাংশ) ও পারিবারিক ১১ শতাংশ জায়গা দেশের আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে জোরপূর্বক দখল করেছে প্রভাবশালী ভূমিদস্যু।

পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর থানার অন্তর্গত দিঘিরজান গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। ভুক্তভোগী শ্রী দীপ্তেন মজুমদার স্থানীয় শহীদ জননী কলেজের প্রিন্সিপাল। একইসাথে তিনি হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নাজিরপুর উপজেলার সহ-সভাপতিও। 

দীপ্তেন মজুমদার আক্ষেপ করে বলেন, তাদের ২০০ বছরের পুরনো শিব মন্দিরের ১০ শতাংশ ও ব্যক্তিমালিকানাধীন ১১ শতাংশ জায়গা কাঁটা তার ও বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়েছিলেন। সরকারি খতিয়ানে ওই জায়গা ও মন্দির তাদের নামেই রেকর্ড করা।

বিজ্ঞাপনটি দেখতে ক্লিক করুন

গত সোমবার (৬ জুলাই) সকাল ৮ টার দিকে মোঃ কামরুল শেখের (কাবুল) নেতৃত্বে মোঃ শাহজাহান শেখ (তহসিলদার) ও মোঃ হেদায়েত শেখ লাঠিয়াল বাহিনী একত্রিত হয়ে কাঁটাতার ও বাঁশের বেড়া ভেঙে দিয়ে জায়গা দখল করে নেন।

এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দীপ্তেন মজুমদার বাধা দেন। তিনি বলেন, জায়গা আমাদের নামে দলিল ও রেকর্ড করা। জমির মালিকানা যদি আপনাদের হয়ে থাকে তাহলে আপনাদের বৈধ কাগজপত্র দেখান এবং সরকার বা প্রশাসনের তরফ থেকে আপনাদের জায়গা বুঝিয়ে দিক।

কিন্তু তার কোন কথায় কর্ণপাত না করে পেশী শক্তি প্রয়োগ করে সমস্ত বেড়া ভেঙে দেয় কামরুল শেখের বাহিনী। এসময় তারা দীপ্তেন ও তার পরিবারের মহিলা সদস্যদের হুমকি-ধামকি ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন বলে অভিযোগ এই প্রিন্সিপাল।

স্থানীয়রা জানান, কেউ এদের অমানবিক অত্যাচারের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না। হোক সে ধনী কিংবা গরিব, ক্ষমতাবান কিংবা ক্ষমতাহীন। দিনশেষে ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিভিন্নভাবে প্রতিনিয়ত নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। এভাবে আর কতদিন চলবে? অন্যায়ের বিরুদ্ধে সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলুন। এখনো সময় আছে। যদি প্রতিবাদ না করেন তাহলে এই ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে টিকে থাকতে পারবেন না।

সূত্র: বাংলাদেশ দর্পন

বিষেরবাশিঁ.কম/ডেস্ক/মৌ দাস

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.