শুক্রবার ২৬ আষাঢ়, ১৪২৭ ১০ জুলাই, ২০২০ শুক্রবার

চীন ফের অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করলে কড়া জবাবের হুঁশিয়ারি ভারতের

অনলাইন ডেস্ক: চীন যদি ফের সীমান্তবর্তী লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় কোনো অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করে তাহলে তার সমুচিত জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ভারত।

শুধু তাই নয়, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কেও এর প্রভাব পড়বে বলেও প্রতিবেশী দেশটিকে ভারত সতর্ক করেছে।

চীনে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত বিক্রম মিশ্রি সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে এ কথা বলেছেন বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

অব্যাহত উত্তেজনার মধ্যে সীমান্তে দু’দেশের অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন ও স্থাপনা নির্মাণের মধ্যেই এই হুঁশিয়ারি আসলো।

বিক্রম বলেন, ‘গালওয়ান উপত্যকার ওপর চীনের সার্বভৌমত্বের দাবি মোটেই যুক্তিযুক্ত নয়।’

বিজ্ঞাপনটি দেখতে ক্লিক করুন

তিনি বলেন, ‘দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অগ্রগতির জন্যে সীমান্তে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখা একটি অপরিহার্য শর্ত। কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে চীনের সেনাবাহিনীর এই দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কোনো শর্তই মেনে চলছে না। চীনের উচিত ভারতীয় সেনার সাধারণ টহলদারিতে বাধা সৃষ্টি না করা।’

ভারতীয় রাষ্ট্রদূতের দাবি, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণের রেখা নিয়ে ভারত সবসময় শর্তাবলী ও নির্দিষ্ট চুক্তি মেনে চলেছে। এবার চীনকে ক্রমাগত দু’দেশের মধ্যে থাকা এই সীমানা লঙ্ঘন বন্ধ করতে হবে এবং প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর ভারতীয় অঞ্চলে করা তাদের নির্মাণ বন্ধ করতে হবে।

এ সময় তিনি বলেন, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ভালোভাবে টিকিয়ে রাখা চীনেরও দায়িত্ব।

এর আগে বৃহস্পতিবার ভারতে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত সান ওয়েডং বলেন, সীমান্তে উত্তেজনা হ্রাস করার দায়িত্ব ভারতের ওপরেই রয়েছে।

জবাবে বিক্রম আরও বলেন, ‘আমি মনে করি, আমরা খুব স্পষ্ট নীতি নিয়ে অত্যন্ত সামঞ্জস্য রেখেই চলছি। এই অশান্তি তৈরি করেছে চীন। তাদের সেনাদের পদক্ষেপই বর্তমান পরিস্থিতির জন্য দায়ী।’

গত ১৫ জুন লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীন ও ভারতের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে প্রাণ হারায় ২০ জন ভারতীয় সেনা। আহত হন কমপক্ষে ৭৬ জন। চীন হতাহতের কথা স্বীকার করলেও সংখ্যা প্রকাশ করবে না বলে জানিয়েছে।

সূত্র: দেশ রূপান্তর

বিষেরবাশিঁ.কম/ডেস্ক/মৌ দাস

Categories: আন্তর্জাতিক

Leave A Reply

Your email address will not be published.