মঙ্গলবার ২৪ চৈত্র, ১৪২৬ ৭ এপ্রিল, ২০২০ মঙ্গলবার

না:গঞ্জের চাষাড়া সমবায় মার্কেটে ক্রেতাদের ভোগান্তি

অনলাইন ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া সমবায় মার্কেটের নীচ তলায় কোন ক্রেতা পন্য নিয়ে দরদাম করতে গেলেই নানানভাবে ক্রেতাদেরকে অপমান, অপদস্ত ও লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনা তো নিত্য দিনের। একেকজন দোকানী ও তার সাথের সেলসম্যানরা যেন একেকজন বড় মাপের সন্ত্রাসী! প্রতিদিনের এমন প্রতিবাদ করতে গিয়ে প্রতিবাদকারীরাও হতে হয় লাঞ্চিত । এমন ঘটনার সঠিক সমাধান করবেন বলে জানিয়েছেন সভাপতি  খাজা ওবায়েদ উল্লাহ টিপু । শহরের চাষাড়াস্থ সমবায় মার্কেটের নীচ তলায় মা ও তার পুত্র পন্য না কেনার কারণে তর্ক বিতর্কের এক পর্যায়ে ছিনতাইকারী বলে গণপিটুনী দেয়ার হুমকি দিচ্ছে কয়েকজন দোকানী ও সেলসম্যানরা । এমন দৃশ্য দেখে কয়েকজন পথচারী একজন নারী ক্রেতাকে ছিনতাইকারী বলে গণপিটুনী দেয়ার প্রতিবাদ করলে বিশাল লংকাকান্ডের ঘটনা ঘটে মার্কেটের ভিতরে ও বাইরে। গেইট বন্ধ করে প্রতিবাদকারী আঃ রহিম নামের এক যুবককে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে সমবায় মার্কেটের সেলসম্যান/দোকানী নামধারী সন্ত্রাসীরা । এমন ঘটনায় তাৎক্ষনিকভাবে মার্কেটের সাভাপতি খাজা ওবায়েদ উল্লাহ টিপু নিজেই দায়িত্ব নিয়েছেন সুষ্ঠু সমাধান করবেন বলে । আশ্বাস প্রদান করেছেন আহতদের। ঘটনাটি ঘটে শনিবার ২২ ফেব্রুয়ারী রাত ৯ টায় । শহরের চাষাড়াস্থ সমবায়  মার্কেটের নীচ তলায় এমন ঘটনা ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেয়ায় আশেপাশের শতাধিক লোকজন ভিড় করে মার্কেটের সামনে । পরিস্থিতি ঘোলাটে হওয়ার আশংকায় হামলাকারী সেলসম্যানদের সকলেই গা-ঢাকা দেয় । ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শনিবার রাত ৯ টার সময় অজ্ঞাতনামা এক মা তার ১৪/১৫ বয়সী পুত্রকে সাথে নিয়ে সমবায়  মার্কেটের নিচ তলায় কেনাকাটা করতে এসে দরদামে মিল না হওয়ায় পন্য না কিনে চলে যাবার সময় ওই নারীকে গালি দেয় তরু নামের এক সেলসম্যান। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে মায়ের সাথে থাকা তার পুত্র। ফের তর্ক বিতর্ক । এক পর্যায়ে মা ও তার ছেলে চলে যাবার সময় সেলসম্যান ও কয়েকজন ( রাসেল, হাসান ও নাইমসহ আরো কয়েকজন) দোকান মালিক ফের গালিগালাজ করার এক পর্যায়ে “চলে যা নইলে ছিনতাইকারী বলে পিটিয়ে পুলিশে দিয়ে দিব“ বলে মন্তব্য করে । এমন মন্তব্যে কয়েকজন পথচারীর সাথে ওই মা ও তার ছেলে ঘটনার প্রতিবাদ করলে প্রতিবাদকারী আঃ রহিমকে সন্ত্রাসী গেইট বন্ধ করে সন্ত্রাসী কায়দায় পিটিয়ে গুরুতর আহত করে সমবায় মার্কেটের সেলসম্যান ও দোকানদারদের অনেকেই । এমন ঘটনার পর উপস্থিত অনেকেই মন্তব্য করে বলেছেন, প্রতিদিন অসংখ্যবার এই সমবায় মার্কেটের সেলসম্যান ও দোকানদারদের আপত্তিকর মন্তব্যের কারণে তর্ক বিতর্ক, মারামারির ঘটনা ঘটেই চলেছে । বিগত দিনেও এক নারীকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় লংকাকান্ডের সৃষ্টি হয় । সমবায় মার্কেটের সেলসম্যান ও দোকানীরা একেকজন যেন বিশাল বিশাল সন্ত্রাসী । এরা এতোটাই ভয়ংকর যে ভাষায় প্রকাশ করার মতো না । যার প্রমাণ পাওয়া যাবে মার্কেটের ক্রোজ সার্কিট ক্যামেরার ফুটেজ দেখলেই । এমন ঘটনায় সভাপতি খাজা ওবায়েদ উল্লাহ গণমাধ্যমকে বলেন ,আমি ঘটনাটি শুনেছি । এর সুষ্ঠ সমাধান আমরা করবো । বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,নারায়ণগঞ্জের খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.