মঙ্গলবার ৩০ আষাঢ়, ১৪২৭ ১৪ জুলাই, ২০২০ মঙ্গলবার

‘সাহা ফাউন্ডেশন’ চমক ২০২০ পরবর্তী পিকনিক কক্সবাজার (ভিডিওসহ)

নিজস্ব প্রতিবেদন: নাম ‘সাহা ফাউন্ডেশন’ হলেও ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সুবিধাবঞ্চিত সকল মানুষের কল্যাণে কাজ করবে ‘সাহা ফাউন্ডেশন’। সাহা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বনভোজন উপলক্ষে আয়োজিত আনন্দমেলায় একথা বলেন ফাউন্ডেশনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও উপদেষ্টা শিল্পোদ্যোক্তা সিআইপি প্রবীর সাহা। গত ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ শুক্রবার ছিল সাহা ফাউন্ডেশন পরিবারের জন্য অন্যরকম একদিন।
'সাহা ফাউন্ডেশন' চমক ২০২০ পরবর্তী পিকনিক কক্সবাজার

'সাহা ফাউন্ডেশন' চমক ২০২০ পরবর্তী পিকনিক কক্সবাজার

Posted by bisherbashi.com – HotNews on Monday, February 10, 2020
অনেকগুলো পরিবারের দেড়শতাধিক সদস্যের একসাথে আনন্দে কাটানোর দিন। যেন একান্নবর্তী পরিবারে ফিরে যাওয়ার দূর্লভ সারাদিন ! চাকচিক্য নেই, কৃত্তিম আলোর ঝলকানি নেই! পেশাদার সেলিব্রিটি শিল্পী নেই, বাদ্যযন্ত্রী নেই, মোটিভেশনাল বক্তা নেই! গতানুগতিক অনেককিছু ই নেই ! তারপরও সাহা ফাউন্ডেশনের সমমনাদের আন্তরিকতায় শ্রীমতি অনন্যা সাহার অসাধারণ সঞ্চালনাগুণে সাদামাটা অনুষ্ঠানটির সবকিছুতে প্রাণ সঞ্চারিত হয়েছিল। ড্রিম হলিডে পার্কের তৈরি মঞ্চের খালি পাটাতন, এক পেয়ার সাউন্ড ও একটিমাত্র মাইক্রোফোন সম্বল। পেশাদার কোন শিল্পী বা বাদ্যযন্ত্রীও নেই! তারপরও একটি অনুষ্ঠান কী দারূণ উপভোগ্য হয়ে উঠতে পারে এর নজীর সাহা ফাউন্ডেশন বনভোজন ও আনন্দমেলা ২০২০। এক অভূতপূর্ব উচ্ছ্বাসের মধ্য দিয়ে উদযাপিত হলো সাহা ফাউন্ডেশনের এই অনাড়ম্বর আয়োজন। অনুষ্ঠানের নিয়ে কারো বিন্দুমাত্র আক্ষেপ নেই, নেই কোন অভিযোগ! গত ৭ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার কোমল শীতের আরামদায়ক আবেশে নানা বয়সের প্রাণচঞ্চল মানুষদের স্বতঃস্ফূর্ততায় নরসিংদির পাঁচদোনায় অবস্থিত দেশসেরা বিনোদন কেন্দ্র ড্রিম হলিডে পার্কে ‘সাহা ফাউন্ডেশন’ পরিবারের প্রায় দেড়শতাধিক বিনোদন প্রিয় মানুষ একসঙ্গে কাটিয়েছেন সকাল-সন্ধ্যা। সাহা ফাউন্ডেশনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক শ্রীমতি অনন্যা সাহার প্রাণবন্ত সঞ্চালনায় নানা ছন্দে, আনন্দে উত্তেজনায় মুখরিত ছিল সারাবেলা-সারাক্ষণ। কবিতা, গানে, খেলাধুলা, নৃত্যসহ বৈচিত্র্যময় সংস্কৃতির ছলাকলার নানা ভঙিমায় পুরো অনুষ্ঠানটি বর্ণাঢ্য হয়ে উঠেছিল। শেষবিকেলে ষোলকলা পূর্ণ করেন সাহা ফাউন্ডেশনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও উপদেষ্টা শ্রী প্রবীর সাহা।। প্রবীর সাহা ‘সাহা ফাউন্ডেশনের’ সাফল্য কামনা করেন। প্রায় দেড়শ বিঘা জায়গাজুড়ে ড্রিম হলিডে পার্কে ঘুরাঘুরি, আড্ডা, খুনসুটি, খানাপিনা, খেলাধুলা, কবিতাপাঠ, ইত্যাদি সবশেষে সাহা ফাউন্ডেশনের সাংগঠনিক সম্পাদক রাজীব সাহা ও শ্রাবন্তী সাহা দম্পতির যুগলনৃত্যের মাধ্যমে শেষ হয় সাহা ফাউন্ডেশনের বনভোজন ২০২০। বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস

Categories: চিত্র-বিচিত্র,বিনোদন,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.