শুক্রবার ২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ শুক্রবার

পাহাড়ধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৭

টানা দুদিনের অতি বর্ষণে পাহাড়ধসে চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ির বিভিন্ন স্থানে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৭-এ পৌঁছেছে। রাঙামাটি থেকে ১০৬ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ২১ জন, চন্দনাইশে তিনজন, বান্দরবানে ছয়জন এবং খাগড়াছড়ি থেকে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

তবে অনেকে এখনো নিখোঁজ রয়েছে। তাদের সন্ধানে সেনাবাহিনী, ফায়ার সার্ভিসের কর্মী ও স্থানীয় লোকজন কাজ করছেন।

প্রবল বর্ষণে গত সোমবার মধ্যরাত ও গতকাল মঙ্গলবার ভোরে পাহাড়ধসে ব্যাপক প্রাণহানি ঘটে।

পাহাড়ধসে সবচেয়ে বেশি প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে রাঙামাটিতে। গতকাল পর্যন্ত রাঙামাটির বিভিন্ন স্থান থেকে ৯৮ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। তাদের মধ্যে রয়েছেন সেনাবাহিনীর দুই কর্মকর্তা ও দুই সৈনিক। পাহাড়ধসে বন্ধ হয়ে যাওয়া রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়ক চালু করতে গিয়ে প্রাণ হারান তারা। আজ সেখান থেকে আরও আটজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সেখানে এখনো অনেকে লোক মাটিচাপা পড়ে আছে।

রাঙামাটির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক প্রকাশ কান্তি চৌধুরী বলেন, বুধবার রাঙামাটি থেকে আরও আটজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে থেকে মা-মেয়েসহ পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

মায়ের নাম পন্তি সোনা চাকমা (৩৫) ও মেয়ের নাম সান্ত্বনা চাকমা (৯)। যুব উন্নয়ন এলাকা থেকে একই পরিবারের তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তারা হলেন- রুপালি চাকমা (৩৫) ও তার দুই মেয়ে জুঁই চাকমা (১২) ও ঝুমঝুমি চাকমা (৭)।

তিনি আরো জানান, ‘রাঙামাটিতে মৃতের সংখ্যা ৯৮ থেকে বেড়ে ১০৬-এ পৌঁছেছে। এ সংখ্যা বাড়তে পারে।’

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় ২১ জন ও চন্দনাইশ উপজেলায় তিনজন এবং বান্দরবানে পাহাড়ধসে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ বেলা দুইটার দিকে বান্দরবানের লেমুঝিরি আগাপাড়া এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে আজিজুর রহমানের নিখোঁজ স্ত্রী কামরুন্নাহার (৪৫) ও মেয়ে সুখিয়া আক্তারকে (১৪) উদ্ধার করা হয়। তাদের উদ্ধারে সকাল থেকে অভিযান চলে সেখানে।

খাগড়াছড়িতে পাহাড়ধসে একজন নিহত হয়েছেন। খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার বর্মাছড়ি ইউনিয়নের পরিমল চাকমা গতকাল সকাল সাতটায় পাহাড়ধসে মারা গেছেন।

লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমা পরিমল চাকমার মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, পাহাড়ধসে আহত সাতজনকে লক্ষ্মীছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নেওয়া হয়েছে।

ব্যাপক প্রাণহানির এই ঘটনায় ঢাকায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত পিয়েরে মায়াদুন গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

Categories: জাতীয়,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.