রবিবার ১৩ মাঘ, ১৪২৬ ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ রবিবার

সৃজিত-মিথিলা জেনেভায় প্রেমে মজেছেন

অনলাইন ডেস্ক: বেশ কিছুদিন গরম ছিল দুই বাংলার মিডিয়ায় ভারতীয় পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় ও বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী, মডেল ও উপস্থাপিকা রাফিয়াত রশিদ মিথিলার বিয়ে হচ্ছে । তবে পরিচালক-অভিনেত্রী বরাবরই কৌশল বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন। অবশেষে এল সেই মাহেন্দ্রক্ষণ।

গত ৬ ডিসেম্বর জানা গেল সন্ধ্যায় তারা বিয়ে করছেন। তবে, এবার আর জল্পনা নয়, সত্যিই বিয়ে হলো। বিয়ের পরদিনেই দুজনে উড়াল দিলেন বরফে ঘেরা আল্পসের দেশে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায়। সেখানেই প্রণয়ে মজেছেন তারা। প্রকাশ্যে এল তাঁদের মধুচন্দ্রিমার একগুচ্ছ নতুন ছবি।

জেনেভার আকাশ কিন্তু বেশ পরিষ্কার। মেঘের চিহ্ন নেই। তাই আল্পসের সারিও মুখ লুকিয়ে থাকেনি। দূর থেকে দেখা যাচ্ছে, সারি সারি বরফ-পাহাড়।

বড়দিনের আর বেশি দিন বাকি নেই। তাইতো রাস্তাঘাট সেজেছে আলোয়। ঠান্ডাও তো সেখানে বারোমাস। কালো লং জ্যাকেটে জেনেভার রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন মিথিলা, সঙ্গে বর সৃজিত।

সৃজিত ছবি তুলেছেন এই রাজহাঁসের সঙ্গে। ইনস্টাগ্রামে সেই ছবি শেয়ার করেছেন পরিচালক। ক্যাপশনের দিকে নজর পড়লে বুঝবেন বেশ খোশমেজাজে আছেন বাংলার জামাই। সৃজিত লিখেছেন, ‘হাঁস ট্যাগড’।

রাস্তায় সাজানো রয়েছে দাবার গুটি। পেছনে আবার ছোট ছোট তাঁবু। রাস্তাঘাট ভিজে। এক পশলা বৃষ্টি কি তাহলে হয়ে গেছে খানিক আগেই? একে অপরের দিকে চেয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন দুজনে। ভালোবাসায় বুঁদ হয়ে রয়েছেন দুজনে।

তবে মধুচন্দ্রিমাই যে একমাত্র উদ্দেশ্য নয়, সে কথা জানা গিয়েছিল আগেই। মিথিলা পিএইচডি করবেন জেনেভার বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাই কাজকর্ম গোছাতেই যাওয়া সেখানে। ঘোরাও হবে, কাজও হবে। একান্তে সময়ও কাটানো যাবে বেশ কয়েকদিন।

বিদেশ যাত্রার দিন ফ্লাইট থেকে বরফে ঢাকা আল্পসের ছবি শেয়ার করেছিলেন সৃজিত। দেখে মনে হবে শরতের মেঘ বুঝি! সে এক নৈসর্গিক দৃশ্য।

বউকে না কি এই ছবিতে হ্যারি পটারের বন্ধু হারমাইনি গ্রেঞ্জারের মতো দেখতে লাগছে, অন্তত সৃজিতের দাবি কিন্তু এমনটি। শীতে জবুথবু। তবে ঘোরার বিরাম নেই।

একটু সময় বার করেছেন কোনোভাবে। ফিরে এসেই তো আবার দুজনকে নেমে পড়তে হবে ছকবাঁধা রুটিনে। তাই এই সময়টাতে একটু মজা নিতে মানা কীসের!

সূত্র: জাগোনিউজ২৪

বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস

Categories: বিনোদন

Leave A Reply

Your email address will not be published.