বৃহস্পতিবার ১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ বৃহস্পতিবার

ঢাবি ভিসি প্যানেল নির্বাচনে আইনি বাধা কাটলো

  • অনলাইন ডেস্ক

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্যানেল মনোয়নের জন্য আগামী ২৯ জুলাই ডাকা সিনেটের বিশেষ সভার ওপর হাইকোর্ট যে স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন তা স্থগিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার বিচারপতির আদালত।

হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে ঢাবি কর্তৃপক্ষের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বুধবার চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এই আদেশ দেন এবং বিষয়টি আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানির জন্য ৩০ জুলাই দিন ধার্য করে দেন।

এর ফলে ২৯ জুলাই ডাকা সিনেটের বিশেষ সভা অনুষ্ঠানে আর কোন বাধা নেই বলে আইনজীবীরা জানিয়েছেন।

আদালতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী এ এফ এম মেজবাহ উদ্দিন।

এর আগে ২৪ জুলাই ভিসি প্যানেল মনোয়নের জন্য ২৯ জুলাই ডাকা সিনেটের বিশেষ সভা স্থগিত করে রুল জারি করেন বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি এম. ফারুক। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ ১৫ জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটদের করা রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত এই আদেশ দেন।

ওইদিন আদালত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আদেশ ১৯৭৩ সালে ২০(১) ধারা অনুযায়ী সিনেট গঠন না করে ২৯ জুলাই ডাকা সভা কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত হবে না তা রুলে জানতে চান।

জানা যায়, ১৬ জুলাই ঢাবির রেজিস্ট্রার সিনেট সভার জন্য একটি চিঠি দেন। এতে বলা হয়, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশ, ১৯৭৩ এর ২১(২) ধারার অর্পিত ক্ষমতাবলে উপাচার্য ২৯ জুলাই বিকাল চারটায় সিনেটের বিশেষ সভা আহবান করেছেন। উক্ত বিশেষ সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশ ১৯৭৩, ১১(১) ধারা অনুযায়ী চ্যান্সেলর কর্তৃক ভাইস চ্যান্সেলর নিয়োগের জন্য তিনজনের একটি প্যানেল মনোনয়ন করা হবে।

ভাইস চ্যান্সেলরের প্যানেলে যাদের নাম অন্তর্ভুক্ত করার জন্য প্রস্তাব করা হবে, নাম প্রস্তাবকালে তাদের লিখিত সম্মতি সিনেট চেয়ারম্যানের নিকট পেশ করতে হবে। উক্ত সভায় উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করছি।’

হাইকোর্টের রুলসহ আদেশের পর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আমাতুল করিম জানান, আবেদনকারীদের দাবি রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটের অনেক প্রতিনিধির পদ খালি। তাই এ নির্বাচন না দিয়ে সিনেট সভা ডেকে উপাচার্য প্যানেল মনোনয়ন করা ঠিক নয়।

এ কারণে ১৬ জুলাইয়ের এ চিঠির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ১৫ জন হাইকোর্ট রিট করেন।

 

বি.বা/ডেস্ক/ক্যানি

Categories: আইন-আদালত,শিক্ষা

Leave A Reply

Your email address will not be published.