সোমবার ১ পৌষ, ১৪২৬ ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ সোমবার

বিদেশ পালানোর সময় র‌্যাবের হাতে কমিশনার মিজান গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান মিজান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে গ্রেফতার হয়েছেন। তিনি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিল।

গত শুক্রবার (১১ অক্টোবর) সকালে র‌্যাবের একটি বিশেষ টিম মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে গুহ রোডের হামিদা আবাসিক গেস্ট হাউজের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়।

র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক এএসপি মিজানুর রহমান ভূইয়া জানিয়েছেন, তিনি ভারতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন।

র‌্যাবের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক ক্ষুদেবার্তায় মিজানকে আটকের খবর জানানো হয়। বার্তায় বলা হয়, চলমান অভিযানের অংশ হিসেবে হাবিবুর রহমান মিজানকে পার্শ্ববর্তী দেশে পালিয়ে যাওয়ার প্রক্কালে শ্রীমঙ্গল থেকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে মিজানকে আটকে গত বুধবার (০৯ অক্টোবর) রাতেও মোহাম্মদপুরের আওরঙ্গজেব রোডের বাড়িতে অভিযান চালায় র‌্যাব। সেসময় তাকে পাওয়া যায়নি। তার বিরুদ্ধে টেন্ডারবাজি-চাঁদাবাজি, ভূমি দখল, মোহাম্মদপুর বিহারি ক্যাম্পে মাদক ও চোরাই গ্যাস-বিদ্যুতের ব্যবসার সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর হাতে।

এক সময় ফ্রিডম পার্টি করা মিজানের বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই। সিটি কর্পোরেশনের ম্যানহোলের ঢাকনা চুরি থেকে শুরু করে মানুষ হত্যার মতো গুরুতর অভিযোগ রয়েছে পাগলা মিজান তার বিরুদ্ধে। ভয়ঙ্কর এই সন্ত্রাসী মোহাম্মদপুরে গড়ে তুলেছেন অপরাধ সাম্রাজ্য।

শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে হামলার এই আসামি এখন আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা। হত্যা ছাড়াও কোটি কোটি টাকার টেন্ডারবাজি, ভূমি দখল, চাঁদাবাজিসহ মোহাম্মদপুর বিহারি ক্যাম্পে মাদক ও চোরাই গ্যাস-বিদ্যুতের ব্যবসার নিয়ন্ত্রক তিনি।

চলমান সন্ত্রাসবিরোধী সাঁড়াশি অভিযান শুরুর সময় তাকে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেলেও কয়েকদিন আগে থেকে তার খোঁজ মিলছিল না। দুই দিন বাড়িতে অভিযান চালিয়েও তাকে পায়নি র‌্যাব। এর মধ্যে গতকাল তাকে আটকের খবর জানায় র‌্যাব।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি আবদুস সালেক বলেন, টিভি দেখে জানতে পেরেছি আমাদের এলাকা থেকে র‍্যাব ওই কাউন্সিলরকে আটক করে নিয়ে গেছে। তার এখানে অবস্থানের বিষয়ে বা র‍্যাবের অভিযানের বিষয়ে আমাদের কিছু জানা ছিল না।

গুহ রোডের বাসিন্দা হাজী ফরিদ আহমেদ জানান, কয়েকদিন ধরে ওই এলাকায় মিজানকে আনাগোনা করতে দেখেছেন তারা।

বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস.

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.