বৃহস্পতিবার ৯ কার্তিক, ১৪২৬ ২৪ অক্টোবর, ২০১৯ বৃহস্পতিবার

খালেদকে আজ রিমান্ড শেষে আদালতে নেয়া হবে

অনলাইন ডেস্ক: যুবলীগের বহিষ্কৃত ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূইয়াকে আজ রিমাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেওয়ার জন্য আদালতে নেয়া হবে।

এর আগে অপরাধের দায় স্বীকার করেছেন গণপুর্তের ঠিকাদার জি কে শামীম এবং কৃষক লীগের শফিকুল ইসলাম। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ হেফাজতে তাদেরকে ক্যাসিনো বাণিজ্যে, টেণ্ডাবাজি, চাঁদাবাদি ও মাদক কারবার এবং আন্ডার ওয়াল্ডের অপরাধ কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা নিয়েও প্রশ্ন করা হচ্ছে।

তদন্ত সংশিষ্ট ডিবি সূত্র জানিয়েছে, তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে পাঠানো হবে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির জন্য। এরপর তাদের বিচার কার্যক্রম শুরু হবে। তবে ডিবিতে তারা যেসব তথ্য দিয়েছেন তাদে অনেক রাঘব বোয়ালের নাম এসেছে। সেই নামের তালিকা ক্রমেই ভারি হচ্ছে।

পুলিশের একটি নির্ভরযো্যে একটি সূত্র জানিয়েছে, ক্যাসিনো বাণিজ্য, চাঁদাবাজি, টেণ্ডারবাজিসহ সকল দূর্নীতিতে যুবলীগ নেতাদের পাশাপাশি এখন পর্যন্ত সারাদেশে শতাধিক লোকজন ধরা হয়েছে। তবে যুবলীগ নেতা সম্রাটসহ গেণ্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের নেতা এনামুল ও রুপন ভুইয়াসহ অনেক নেতাই এখনও ধরা পড়েনি। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে কোন মামলাও হয়নি।

গত বুধবার রাতে রাজধানীর মতিঝিলের ইয়ংমেনস ক্লাব, ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাব, বনানীর গোল্ডেন ঢাকা বাংলাদেশ এবং গুলিস্তানের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্লাবে অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে চারটি ক্লাব থেকেই বিপুল পরিমাণ ক্যাসিনো ও জুয়ার সামগ্রী উদ্ধার করা হয়।

ওই দিন যুবলীগ নেতা খালেদকে গ্রেপ্তার করে সাত দিনের রিমাণ্ডে নিয়ে ডিবিতে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আজ তার সাত দিনের রিমাণ্ড শেষ হবে। এছাড়া গ্রেপ্তার হওয়া জি কে শামীম ও কৃষক লীগ নেতা শফিকুল ইসলামকে রিমাণ্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাদ চলছে ডিবিতে। তাদের রিমাণ্ডও শেষ পর্যায়ে।

বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস.

Categories: আইন-আদালত

Leave A Reply

Your email address will not be published.