সোমবার ১ পৌষ, ১৪২৬ ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ সোমবার

ঝড়ে ট্রলার ডুবির ঘটনায় ছয় শিশুসহ ৯ জনের লাশ উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক: সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে গতকাল মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) আত্বীয় বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে যাবার পথে ঝড়ের কবলে পড়ে ইঞ্জিন চালিত ট্রলার ডুবির ঘটনায় কাইল্যাকুটা (কালিয়াকুটা) বিল থেকে চার শিশুর লাশ উদ্ধ্যার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো নিখোঁজ রয়েছেন নারী ,শিশু পুরুষ সহ কমপক্ষে আরো ১৯ জন।

মঙ্গলবার রাত সোয়া ১০টার দিকে দিরাই উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কুটি মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

ট্রলার ডুবির ঘটনার বরাত দিয়ে ওই উইপ সদস্য জানান, মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের মাছিমপুর গ্রাম থেকে গ্রামের হাবলু মিয়ার পরিবারের লোকজন পার্শ্ববর্তী চরনাচর ইউনিয়নের পেরুয়া গ্রামে ফিরোজ মিয়ার ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে একটি ছাউনি বিহীন খোলা ইঞ্জিন চালিত ট্রলারে মাছিমপুর থেকে পেরুয়া গ্রামের উদ্দ্যেশে ছেড়ে যায়। একই ট্রলারে পেরুয়ার নয়ারচর থেকে মাছিমপুর বেড়াতে আসা নারী পুরুষ শিশু সহ মোট ৩১ যাত্রী ছিলেন।

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মাছিমপুর গ্রাম থেকে প্রায় ৩কি.মি দুরে কাইল্যাকুটা বিলে ট্রলারটি ঝড়ের কবরে পড়ে ডুবে যায়। এতে ট্রলারে থাকা সবাই পানিতে ডুবে যেতে যেতে ১২ নারী পুরুষ সাতড়িয়ে তীরে উঠেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্থানীয় ডুবুরি দল ও এলাকার লোকজন ছোট ছোট নৌকা নিয়ে বিলে তল্লাশী চালিয়ে চার শিশু সন্তানের মরদেহ বিলের ভাসমান পানি থেকে উদ্ধ্যার করে তীরে নিয়ে আসেন।

নিহত শিশুরা হলেন, দিরাইয়ের রফিনগর ইউনিয়নের মাছিমপুর গ্রামের বাবুলের ছেলে শামিম (২), বদরুলের প্রতিবন্ধী ছেলে আবির (৩), উপজেলার চরনাচর ইউনিয়নের নোয়ারচর গ্রামের আফজালের ছেলে সোহান (২) পেনুয়া গ্রামের ফিরোজ আলীর ছেলে আজম (২)।

জানা যায়, বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) ভোরে আরো ৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এতে দুই শিশু ও তিন নারীর লাশ ছিল। ভোরে উদ্ধার লাশের পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি।

ওই ইউপি সদস্য আরো বৈরী আবহাওয়ার জন্য রাত দশটায় স্থানীয় ডুবুরি দল ও এলাকাবাসী উদ্ধ্যার অভিযান বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছেন।

ট্রলারের মাঝি সুকানী ও নিখোঁজদের পরিবারের দেয়া তথ্য অনুযায়ী ওই ট্রলারে থাকা ১৯ যাত্রী এখনো নিখোঁজ রয়েছেন বলেও নিশ্চিত করেন ওই ইউপি সদস্য।

এদিকে খবর পেয়ে উদ্ধ্যার অভিযানে স্থানীয় ডুবুরি দল ও এলাকাবাসীকে সহযোগীতা করতে দিরাই থানা থেকে ওসি কেএম নজরুল ইসলাম একদল পুলিশ নিয়ে রাত দশটার দিকে ঘটনাস্থলে পৌছেছেন বলে জানান।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টায় সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান ট্রলারডুবিতে চার শিশুর লাশ উদ্ধারের তথ্য নিশ্চিত করে জানান, উদ্ধারকাজে সহযোগীতা করতে রাতে দিরাই থানার ওসির নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে।

বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস.

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.