শনিবার ৯ ভাদ্র, ১৪২৬ ২৪ আগস্ট, ২০১৯ শনিবার

রাজধানীতে পৃথক তিন সড়ক দুর্ঘটনায় তিন জন নিহত

অনলাইন ডেস্ক: ঈদের দিন সোমবার থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত রাজধানীর বাড্ডা, শান্তিনগর ও বিমানবন্দর এলাকায় পৃথক তিনটি সড়ক দুর্ঘটনায় সোহেল (৩০), রিনভি (২৫) ও সেলিম (৩৩) নামে তিন জন নিহত হয়েছেন।

পল্টন থানার এসআই শাহ আলম জানান, নিহত সোহেলের বাবার নাম নুরুল আলম। থাকতো ভাটারা নতুনবাজার এলাকায়। বাবার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে তিনি দেখাশুনা করতেন। সোমবার রাত ১২ টার দিকে দূর সম্পর্কে ভাই কবিরকে সঙ্গে নিয়ে মোটর সাইকেলে ঘুরছিলেন তারা। শান্তিনগরে ফ্লাইওভার ব্রীজ থেকে নেমে লাজফার্মার সামনের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার আইল্যান্ডের সাথে ধাক্কা লাগে। এতে তারা মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে যায়। সোহেল গুরুতর আহত হলে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পর রাত ১টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে, নিহত রিনভি’র চাচা মাসুদ জানান, ভাটারা নতুন বাজার এলাকায় থাকতেন রিনভি। তার স্বামীর নাম কাবুল। ঈদের দিন রাতে উত্তর বাড্ডা ফুজি টাওয়ারের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় পিকআপের ধাক্কায় ছিটকে পড়েন রাস্তায়। ওই সময় একটি চলন্ত বাস তাকে পিষ্ট করে দেয়। এতে স্বামী, সন্তানসহ ৩জন আহত হন। পরে তাদেরকে স্থানীয় এরকটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে গভীর রাতে রিনভিকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। বাড্ডা থানার এসআই শহিদুল আলম ঘটনার পরপরই বাসটিকে জব্দ করলেও পিকআপটি পালিয়ে যায়।

রাজধানীর বিমানবন্দর বাস স্টেশনে মঙ্গলবার বিকালে একটি বাসে উঠতে গিয়ে অপর বাসের চাপায় মোঃ সেলিম (৩৩) নামে যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত সেলিম উত্তরা ৪ নম্বর সেক্টরের কর অঞ্চল-৯ এর অফিস সহকারী ছিলেন। দক্ষিণ খান থানা এলাকার দক্ষিণপাড়া নামক স্থানে তার বাসা।

উদ্ধারকারী পথচারীর বরাত দিয়ে নিহতের ভাই আবু সায়েম বলেন, বিকাল সাড়ে ৪ টার সময় সেলিম বিমানবন্দর বাস স্টেশনে একটি বাসে উঠার সময় পাশ দিয়ে আসা আরেকটি বাস চাপা দেয়। এতে সেলিম বাসের মাঝে চাপা পরে। পরে পথচারীরা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উত্তরা আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে নিহতের ভাই উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। কিন্তু রাত সাড়ে ৮ টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস.

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.