শনিবার ২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ ১৬ নভেম্বর, ২০১৯ শনিবার

বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন তারই কন্যার নেতৃত্বে পূরণ হচ্ছে: এসপি হারুন

অনলাইন ডেস্ক: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসনের আয়োজনে চাষাঢ়ায় রাইফেলস্ ক্লাবে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সেই আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ।

জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ আলোচনা সভায় বলেছেন, ‘নারায়ণগঞ্জকে একটা বাসযোগ্য পরিবেশ করছি। সেখানে কোন সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ থাকবে না। যারা রাতের বেলা মাদক ব্যবসা করেন আর দিনের বেলা কোন বড় ভাইয়ের সাথে দেখা করেন সেসব মানুষদের বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান। আমরা সাধারণ মানুষের পক্ষে থাকতে চাই, নেতৃবৃন্দের পক্ষে থাকতে চাই। কোন মাদক ব্যবসায়ী, তেল চোরা কারবারির পক্ষে আমরা নেই।’

তিনি আরো বলেন, ‘এদেশে যোগ্য নেতৃত্ব তৈরি হবে। আজকে ইয়াবার মতো মাদক ব্যবসা করে তথাকথিত নেতারা অনেকের নেতৃত্বকে ধ্বংস করছে। ওই সকল তথাকথিত নেতাদের বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান। চক্রান্তকারীরা, জঙ্গিবাদীরা এখন আর জামায়াত-শিবিরের পরিচয়ে নয় বিভিন্ন কায়দায় আমাদের ভিতরে ঢুকছে, সাধারণ মানুষের কাতারে ঢুকছে, বিভিন্ন পার্টিতে নাম লেখাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দদের সজাগ থাকতে হবে।’

‘আর আপনারা সজাগ না থাকলে আবারো ১৫ আগস্টের মতো জেগে উঠবে তারা। বাংলাদেশে অশান্তি সৃষ্টি করবে। বাংলাদেশের উন্নয়নের চাকা বন্ধ করে দেবে। এদেশের বিনিয়োগকারীরা দেশ ছেড়ে চলে যাবে। আমরা যারা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীতে রয়েছি তারা বিষয়টা খেয়াল রাখছি। আপনারা যারা মুক্তিযোদ্ধা, স্বাধীনতার স্বপক্ষের মানুষ রয়েছেন তারা প্রত্যেকে নিজ নিজ বাড়ির দিকে খেয়াল রাখবেন। কারা কোথায় থাকে কীভাবে বসবাস করে এই খবরটুকু আমাকে দিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব যে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন তারই কন্যার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এই নারায়ণগঞ্জেই হাজার হাজার বিদেশীরা ব্যবসা-বাণিজ্য করছে। বাংলাদেশ আজকে ঘুরে দাড়িয়েছে। বাংলাদেশেই পৃথিবীর সকল মানুষ আসবে।’

জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন এই কর্মকর্তা বলেন, ‘আমার জেলা প্রশাসক মহোদয় প্রায়ই বলে থাকেন, আমরা দু’জন মিলে নারায়ণগঞ্জকে সুন্দর করার চেষ্টা করবো। অবশ্যই আমরা সেই লক্ষ্যেই কাজ করছি।’

জেলা প্রশাসক মো. জসিমউদ্দিনের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. নুরুল হুদা, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক, তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বেলা রাণী সিংহ, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রফেসর শিরিন আক্তার, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল প্রমুখ।

বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস.

Categories: নারায়ণগঞ্জের খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.