মঙ্গলবার ১০ আশ্বিন, ১৪২৫ ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ মঙ্গলবার

জবি শিক্ষার্থী নিখোঁজ : স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পত্র প্রেরণ

  • অনলাইন ডেস্ক

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র সাদিকুল ইসলাম মিলন ৫৫ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। তার সন্ধান দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা।

তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ উক্ত শিক্ষার্থীর সন্ধানে সচেষ্ট রয়েছে। এ পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীর সন্ধানের জন্য আজ (১৭ জুলাই, ২০১৭) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মহোদয় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবরে পত্র প্রেরণ করেছেন।

আজ সোমবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা ক্লাস রুমে তালা ঝুলিয়ে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে বিক্ষোভ শুরু করে। পরে শিক্ষার্থীরা প্রধান ফটক পেরিয়ে রাজপথে আসতে চাইলে পুলিশ বাঁধা দেয়। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. নুর মোহাম্মাদ ঘটনাস্থলে এসে শিক্ষার্থীদের প্রধান ফটক ছেড়ে দিতে বলেন। পরে শিক্ষার্থীরা সেখান থেকে সরে আসেন। এরপর প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেয় তারা।

এ সময় প্রক্টর ড. নুর মোহাম্মদের উদ্যোগে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ম‌ধ্যে থেকে ৭ জন শিক্ষার্থীকে ডেকে নিয়ে নিখোঁজ মিলনের সন্ধানের বিষয়ে আলোচনা করেন।

এর আগে গত বুধবার দুপুরে মিলনের সন্ধান দাবিতে মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন তারা। এর মধ্যে মিলনকে খুঁজে বের করে তার অবস্থান নিশ্চিত না করলে ক্লাস পরীক্ষা বর্জনসহ কঠোর আন্দোলনের ঘোষণার দিয়েছিলো তারা। দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি না দেখে আন্দোলনে নামে তারা।

গত ২৩ মে রাতে মোহাম্মদপুরের আদাবর থানার ৫ নম্বর সড়কের ৭ নম্বর বাড়ি থেকে কয়েকজন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে মিলনকে তুলে নিয়ে যায়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ বিভিন্ন জায়গাতে খোঁজাখুজির পর না পেয়ে পরদিন মিলনের পরিবার আদাবর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন, যাহার নম্বর- ১১৫৯।

এ বিষয়ে জবি প্রক্টর ড. নুর মোহাম্মাদ বলেন, মিলনকে উদ্ধারের বিষয়ে আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। শিক্ষার্থীদের আন্দোলন যৌক্তিক, তাদের সাথে আমরাও একমত। মিলনের সন্ধানের জন্য মঙ্গলবার তার সহপাঠীদেরকে সঙ্গে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ডিএমপি কমিশনারের সাথে দেখা করবে। শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করলে প্রশাসনও সঙ্গে থাকবে। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বি.বা/ডেস্ক/ক্যানি

Categories: শিক্ষা

Leave A Reply

Your email address will not be published.