সোমবার ১ আশ্বিন, ১৪২৬ ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সোমবার

হৃদয়বানদের দানের টাকায় কন্যা দায় থেকে মুক্ত হলেন বলাই চন্দ্র বিশ্বাস

অনলাইন ডেস্ক: মানবতা এখনোও নির্বাসিত হয় নি। উদাহরণ চট্টগ্রাম ও দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের কিছু হৃদয়বান মানুষ। কন্যা দায়গ্রস্থ দরিদ্র পিতা বলাই চন্দ্র বিশ্বাসের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন চিকিৎসক, ব্যবসায়ী, চাকুরিজীবীসহ সর্বস্তরের মানুষ। চট্টগ্রাম থেকে বিজয় সরকার জানিয়েছেন, ১২ই জুলাই ২০১৯ শুক্রবার যাদের আশির্বাদ এবং সাহায্য নিয়ে বলাই চন্দ্র বিশ্বাসের মেয়ে বর্ষা রানী বিশ্বাস এর বিয়ে সম্পন্ন হলো তারা হলেন, চট্টগ্রাম লায়ন্স চক্ষু হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সিনিয়র সার্জন এবং বাগীশিক কেন্দ্রিয় সংসদের সম্মানিত সহ-সভাপতি ডাঃ কথক দাশ, মেঘনা জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ইমেজিং সেন্টারের সম্মানিত চেয়ারম্যান ডাঃ দীনেশ দেবনাথ, বাংলাদেশ হিন্দু হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের সম্মানিত সেক্রেটারি জেনারেল মানিক চন্দ্র সরকার, রোমা মোদক দিদি, ইটালি প্রবাসী, সুব্রত সরকার-ঢাকা, বাবু বিকাশ কর্মকার, সভাপতি বাংলাদেশ সেন্টার ফর হিউম্যান রাইটস এন্ড ডেভেলপমেন্ট, এ্যাডঃ প্রদীপ দেবনাথ, প্রদীপ দেবনাথ ফাউন্ডেশনের সম্মানিত চেয়ারম্যান, বাবু উত্তম চৌবে,কাতার প্রবাসী, বাবু রিপন ধর, মটর পার্টস ব্যবসায়ী, বাবু রিপন বনিক, বিজয় জুয়েলার্সের সিনিয়র কারিগর, বাবু খোকন সরকার, শ্রী বাবুল চন্দ্র কর্মকার ফেনী, বাবু বিধান রায় বিশ্বাস প্রমৃখ।

সবার এই মহৎ অনুদানে একজন কন্যা ঋণগ্রস্থ বাবা দায় থেকে মুক্তি পেলেন। নব পরিণীতা বর্ষা রানী ও অসহায় বাবা বলাই চন্দ্র বিশ্বাস সকলের কাছেই আশির্বাদ চেযেছেন এবং দয়াবানদের নমস্কার ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। বলাই চন্দ্র বিশ্বাস তরুণ সমাজকর্মী বিজয় সরকারের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, “বিজয় সরকার অনেক চেষ্টা করে সকলের সাহায্যকৃত অর্থ আমাদের হাতে পৌছিয়ে দিয়ে সারারাত সজাগ থেকে নিজে দাঁড়িয়ে মেয়ের বিবাহ অনুষ্ঠান সম্পন্ন করেন।”

বিষেরবাঁশি.কম/ডেস্ক/মৌ দাস.

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.