সোমবার ৭ শ্রাবণ, ১৪২৬ ২২ জুলাই, ২০১৯ সোমবার

এনসিটিবি’র অনুমোদনবিহীন পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে গ্রেফতার ২

বিপুল পরিমাণ নিন্ম মানের নকল পাঠ্যবই উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১১।

 

বিষেরবাঁশি.কম: ঢাকার সূত্রাপুর থানার ১৫নং রূপচাঁদ লেন বাড়ির মালিক আলহাজ্ব নাঈম আহম্মেদ খাঁন এর নিচ তলার ভাড়াটিয়া প্রতিষ্ঠান “ভাই ভাই বুক বাইন্ডিং’ এবং ঢাকা জেলার ডেমরা থানার মাতুয়াইল হাজী বাদশা মিয়া রোডস্থ “ফাইভ স্টার প্রিটিং প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স’ এ অভিযান পরিচালনা করে এনসিটিবি’র অনুমোদনবিহীন একাদশ-দ্বাদশ শ্রেনীর মূল বই ছাপানোর অভিযোগে ০২ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

গত ২৬ জুন ২০১৯ রাতে র‌্যাব-১১ মুন্সিগঞ্জ এর আভিযানিক একটি দল গোপন সূত্রের ভিত্তিতে অভিযানটি চালায়। সেখান থেকে এনসিটিবি’র অনুমোদনবিহীন একাদশ-দ্বাদশ শ্রেনীর বাংলা মূল বইয়ের নকল প্রিন্টেড কপির ৪,৫০০ টি বইয়ের সমপরিমান ৪৭ টি বান্ডিল ও বাংলা সাহিত্য ও সহপাঠ মূল টেক্স বইয়ের এনসিটিবি এর নকল লোগো সহ ০২ বান্ডেল বই উদ্ধার করে র‌্যাব।

গ্রেফতারকৃতরা হলো ভাই ভাই বুক বাইন্ডিং এর মালিক মোঃ নবী খাঁন (৩৫), এবং ফাইভ স্টার প্রিটিং প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স এর ম্যানেজার মোঃ আইয়ুব হোসেন (৫৩)।

র‌্যাব জানায়, গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ জানা যায় এই অসাধু ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন যাবৎ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় কলেজ ও মাদ্রাসার মূল পাঠ্য বইয়ের নকল প্রিন্টেড কপির প্রিন্ট,বাইন্ডিং, সংরক্ষণ ও বিক্রি করে প্রতারণা মূলক ব্যবসা চালিয়ে আসছে। নকল এই পুস্তকগুলোতে অনেক মুদ্রন জনিত ক্রুটি ও তথ্যের বিভ্রাট রয়েছে। ফলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদেরকে প্রতারিত ও বিকৃত তথ্যের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এছাড়াও এইচএসসি-তে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন পরিমার্জিত টেক্স বই আগামী ১লা জুলাই থেকে বাজারে প্রদানের লক্ষ্যে এনসিটিবি তথা সরকারের যে প্রয়াস উক্ত কর্মকান্ডকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য এবং অনৈতিক লাভের জন্য এই অসাধু বই প্রকাশক ও বিক্রেতা সিন্ডিকেট চক্র এনসিটিবির মূল টেক্স বই নকল করে বাজারজাত করে আসছে।
গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে ডিএমি, ঢাকার সূত্রাপুর ও ডেমরা থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

বিষেরবাঁশি.কম/ডেক্স/মৌ দাস

 

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,শিক্ষা

Leave A Reply

Your email address will not be published.