সোমবার ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ সোমবার

নরসিংদীতে এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে কিল-ঘুষি-কামড়

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: নরসিংদীর বেলাবতে এক কলেজ ছাত্রী (১৮)কে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে নির্যাতিতা কলেজ ছাত্রী বাদি হয়ে বেলাবো থানায় দুই বখাটেকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। নির্যাতিত শিক্ষার্থী উপজেলার নারায়নপুর রাবেয়া মহাবিদ্যালয়ের এইচ এস সি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। মামলায় অভিযুক্তরা হলো চর উজিলাব ইউনিয়নের চর আমলাব গ্রামের মজনু মিয়ার ছেলে রাসেল(১৮) ও শামসুল হকের ছেলে নুরুল ইসলাম(২০)।

নির্যাতিত শিক্ষার্থী ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৮ জুন শনিবার রাত ১০ টার দিকে কলেজ ছাত্রী প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে ঘর থেকে বের হয়। ওই সময় পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা দুই বখাটে রাসেল ও নুরুল ইসলাম মেয়েটির মুখে কাপড় দিয়ে বেঁধে বাড়ির পাশে একটি নীচু জমিতে নিয়ে যায়। সেখানে বখাটেরা জোর পূর্বক মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

এ সময় বখাটেরা ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে মেয়েটির শরীরের বিভিন্ন স্থানে কামড়িয়ে ও কিল-ঘুষি দিয়ে গুরুত্বর আহত করে। এসময় সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে বখাটেরা তাকে মৃত ভেবে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

এদিকে মেয়েকে না পেয়ে বাড়ির লোকজন ও প্রতিবেশিরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজা-খুঁজি শুরু করে। রাত ১ টার দিকে বাড়ির পাশের নীচু জমিতে মেয়েটিকে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। পরে উদ্ধার করে বেলাবো স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ ঘটনায় সোমবার দুপুরে বেলাবো থানায় নারী ও শিশু নির্যাতিত দমন আইনে মামলা দায়ের করেন নির্যাতিত কলেজ শিক্ষার্থী। এঘটনায় নির্যাতিতার মা ও এলাকাবাসি জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়েছেন।

বেলাব থানার ওসি মো. ফকরুদ্দীন ভূইয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, নির্যাতিত মেয়েটি দুই বখাটেকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে। বর্তমানে আসামিরা পলাতক রয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি

Leave A Reply

Your email address will not be published.