বৃহস্পতিবার ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ ২২ আগস্ট, ২০১৯ বৃহস্পতিবার

পরকীয়ার অভিযোগে নারী-পুরুষকে গাছে বেঁধে নির্যাতন (ভিডিও)

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: নোয়াখালী সদর উপজেলার আন্ডারচর ইউনিয়নের বুদ্দিনগর এলাকায় পরকীয়ার অভিযোগে গাছের সঙ্গে বেঁধে এক নারী ও পুরুষকে প্রকাশ্যে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় গতকাল বুধবার রাতে মারধরের শিকার ওই নারী বাদী হয়ে গ্রাম্য চিকিৎসক জাফর আহমেদসহ আটজনের নামে থানায় মামলা করেছেন। পরে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলার প্রধান আসামি জাফরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। স্থানীয় করমুল্যাহ্ থেকে সুধারাম থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে।

নির্যাতনের শিকার ওই নারী বুদ্ধিনগর এলাকায় মা ও সন্তান নিয়ে বসবাস করেন। তিনি স্থানীয় একটি ইটভাটায় কাজ করেন। ওই নারীসহ আরেকজনকে নির্যাতনের একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, এক ব্যক্তিকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছে, আর পাশে নারীকে লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করছেন চিকিৎসক জাফর। এর কিছুক্ষণ পর ওই ব্যক্তিকেও লাঠি দিয়ে পেটানো হয়। মারধরের একপর্যায়ে ওই ব্যক্তিকে বেঁধে রাখা অবস্থায় তার মাথা ন্যাড়া করা হয়।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই ব্যক্তি জানান, তিনি তার সহকর্মী ওই নারীর কাছে দুই হাজার টাকা পেতেন। টাকা আনার জন্য গত রোববার সকালে ওই নারীর বাড়ি গেলে স্থানীয় কয়েকজন পরকীয়ার মিথ্যা অপবাদ দিয়ে তাকে ধরে নিয়ে যায়। পরে তার সহকর্মী ও তার মা অনুরোধ করলেও তাকে ছাড়েনি। ওই নারী ও পুরুষকে মারধর করা হয়।

নোয়াখালী অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদ নাছের জনি জানান, গত রোববার সকালে পরকীয়ার অপবাদ দিয়ে জাফর আহমেদ ওরফে জাফর ডাক্তারসহ বেশ কয়েকজন মানুষের সামনে দুই নারী-পুরুষের ওপর বর্বর নির্যাতন চালায়। নির্যাতনের পর পুরুষের মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া হয়। পরে নির্যাতনের শিকার ওই পুরুষকে পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ বিষয়ে সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, গতকাল মধ্যরাতে নির্যাতনের শিকার ওই নারী অভিযুক্ত পল্লী চিকিৎসক জাফর আহমেদসহ আটজনের নাম উল্লেখ করে সুধারাম থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আজ মামলার প্রধান আসামি পল্লী চিকিৎসক জাফরকে গ্রেপ্তার করে। অন্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.