শুক্রবার ১০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ ২৪ মে, ২০১৯ শুক্রবার

“বাংলার রবিনহুড না,’বাংলার সিংহাম” পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ এর শিরোনাম নিয়ে তোলপাড়! (ভিডিও আসছে)

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: উপাধীর সাগরে ভাসছেন নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ। বাংলার ‘রবিনহুড’ ও বাংলার ‘সিংহাম’ শিরোনাম ঘিরে নারায়ণগঞ্জের সর্বত্র আলোচনার ঝড়।
ইংরেজ লোককাহিনীর জনপ্রিয় বীরত্বপূর্ণ এক চরিত্রের নাম ‘রবিনহুড ‘। ১৯ শতকের প্রথমদিকে তিনি পরিচিত হয়েছিলেন গরীবের বন্ধু হিসেবে।

উল্লেখ্য,সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বহুল আলোচিত ও বিতর্কিত কাউন্সিলর ডিসবাবুকে গ্রেফতারের পর পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদকে নিয়ে নিউজ২৪.ওয়েবসাইট এ ‘রবিনহুড’ শিরোনামে প্রথম একটি প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ৬ মে চাষাড়া এলাকায় দেখা গেল ‘বাংলার সিংহাম’ লেখা একটি ব্যানার। কেন এই অদ্ভুত শিরোনাম? এ নিয়ে কৌতুহলের শেষ নেই!

বলিউডখ্যাত ব্লকব্লাস্টার অ্যাকশান মুভি ‘সিংহাম’- এ সুপার পাওয়ার পু্লিশকর্তার ভূমিকায় অভিনয় করা নায়ক অজয় দেবগনের চরিত্রের সঙ্গে তুলনা করেই পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদকে বলা হচ্ছে ‘বাংলার সিংহাম’!

২০১১ সালের পরিচালক রোহিত শেঠির ধামাকাদার ছবিগুলোর মধ্যে ‘সিংহাম’ একটি। কিং অব অ্যাকশন, যার একাধিক ভার্সনে মুক্তি পেয়েছে। তেলেগু ছবিতে সিংহামকে পার্ট-২ ও পার্ট-৩ মুক্তি পায়। এছাড়াও বলিউডেও একই ভাবে ছিল পার্ট-২ পর্যন্ত। মুভিগুলো এখন পর্যন্ত কয়েকশ কোটি ভারতীয় ও বিদেশী টাকা উপার্জন করেছে। মুভিটির জনপ্রিয় এতো যে ভারতের বাইরে বাংলাদেশেও এ প্রচুর দর্শক রয়েছে।

আর সেই জনপ্রিয় অ্যাকশন মুভির সাথে তুলনা করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদকে, যিনি ইতোমধ্যে মাদক, সন্ত্রাস, ভূমিদস্যু চাঁদাবাজসহ অপরাধীদের বিরুদ্ধে মুভির মতোই অ্যাকশন চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রতিদিন অপরাধের বিরুদ্ধে সিংহামের মতো ব্লক রেইড দিয়ে উগ্রবাদ, সন্ত্রাস, মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনছেন।
মুভিতে যেমন খলনায়কদের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে নায়ক অজয় দেবগন সন্ত্রাসী ও অপরাধীদের গ্রেফতার করে নিয়ে আসেন, তেমনি অভিযান চালিয়ে যাচ্ছেন এসপি হারুন। এ নিয়ে ইতোমধ্যে শীর্ষ পর্যায়ের কারো কথাই তিনি শুনেনি। বরং অপরাধের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করে নারায়ণগঞ্জে সন্ত্রাস, মাদক, উগ্রবাদ, ভূমিদস্যু, চাঁদাবাজা, জুয়াড়ি, তেলচোর, হকার উচ্ছেদ, অবৈধ দখলদার, বালুসন্ত্রাস, মাদকের গডফাদারসহ কাউকে ছাড় দিচ্ছেন না। এমনকি পুলিশ প্রশাসনের মধ্যে বিপথগামী ও দায়িত্ব অবহেলাকারীদেরও পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছেন না। ছোট থেকে ছোট ইস্যুতেও সাময়িক বরখাস্ত কিংবা বদলী করে দিচ্ছেন। তারপরও নারায়ণগঞ্জকে সুন্দর করতে কাজ করে যাচ্ছেন। তার এ কাছে প্রসংশায় এ ব্যনার টানানো হয়েছে।
সোমবার দুপুরে সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, শহরের চাষাঢ়া গোল চত্বরের পূর্ব পাশে খাজা মার্কেটের দ্বিতীয় তলার বারান্দায় লেখা আছে ‘বাংলার সিংহাম’, – প্রচারে নারায়ণগঞ্জবাসী। তবে এ ব্যানার কার পক্ষ থেকে লাগানো হয়েছে তা জানা যায়নি।

কে বা কারা লাগিয়েছে সেটা জানা না গেলেও পথচারীরা বলাবলি করছেন, যারাই লাগিয়েছে তারা ভালো কাজই করছে। ব্যক্তির সাথে উপাধিটাও যথাযথ হয়েছে।
একজনের প্রশ্ন,’পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ চলে গেলে আবার ‘যেই লাউ সেই কদু হবে না তো?’

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদাদাতা/হৃদয়

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,নারায়ণগঞ্জের খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.