মঙ্গলবার ৫ ভাদ্র, ১৪২৬ ২০ আগস্ট, ২০১৯ মঙ্গলবার

ফণীর তাণ্ডবে ওড়িশায় নিহত ১৬, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে ভারতের ওড়িশা রাজ্যের ১২টি জেলায় অন্তত ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে রাজ্য সরকার। এছাড়া অন্ধ্রপ্রদেশের ওড়িশা সংলগ্ন এলাকায় তুমুল ঝড়ে নষ্ট হয়েছে প্রায় ৫৮ কোটি ৬০ লক্ষ টাকার ফসল ও সম্পত্তি।

ঝড়ের তীব্রতা কমে যাওয়ায় বিশেষ ক্ষতি হয়নি পশ্চিমবঙ্গে। বিপর্যয় মোকাবিলার প্রস্তুতির সময়ে প্রশাসনের পাশে থাকার জন্য বাসিন্দাদের ধন্যবাদ জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সোমবার ওড়িশায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

গতকাল শনিবার সকালে পুরীতে আছড়ে পড়ে ফণী। ওই ঝড়ের দাপটে লণ্ডভণ্ড হয় ভুবনেশ্বর, বালেশ্বর, জাজপুর, খুরদা ও নয়াগড়ের মতো এলাকা। এখনও ১৬ জনের মৃত্যু খবর পাওয়া গেছে।

দেশটির প্রশাসন জানায়, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১১ লক্ষ বাসিন্দাকে নিরাপদ এলাকায় নিয়ে যাওয়াতে ব্যাপক প্রাণহানি এড়ানো গেছে।

ওড়িশার অতিরিক্ত মুখ্যসচিব সুরেশ মহাপাত্রের কথায়, ‘এই ঝড়ে লক্ষ লক্ষ মানুষ গৃহহীন হয়েছেন বলে ধারণা। কিন্তু যোগাযোগ ব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় এখনও সঠিক সংখ্যা জানতে পারিনি। পুরী ও ভুবনেশ্বরে টেলিকম নেটওয়ার্ক একেবারে বির্পযস্ত। সেই নেটওয়ার্ক চালু হতে সময় লাগবে।কোন কোন এলাকায় বেশি ক্ষতি হয়েছে তা এখনও বোঝার চেষ্টা করছি।’

বিদ্যুৎসচিব হেমন্ত শর্মা জানান, ভুবনেশ্বরে ১০ হাজার বিদ্যুতের খুঁটি পুরো নষ্ট হয়ে গিয়েছে। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হন ৩০ লক্ষ গ্রাহক। দ্রুত ভুবনেশ্বরের ২৫% এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ ফেরানোর চেষ্টা চলছে। বিদ্যুতের খুঁটি ও গাছ পড়ে বন্ধ অনেক জাতীয় ও রাজ্য সড়ক। রোববার বিকেলের মধ্যেই সড়ক থেকে সেসব সরানোর চেষ্টা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.