মঙ্গলবার ৫ ভাদ্র, ১৪২৬ ২০ আগস্ট, ২০১৯ মঙ্গলবার

সাহা ফাউন্ডেশনের সদস্য প্রিয়াঙ্কার জন্মদিনের রাত না পেরোতেই আত্মহত্যা!

বিষেরবাঁশী.কম: সাহা ফাউন্ডেশন এর কনিষ্ঠ সদস্য হাসিখুশি প্রিয়াঙ্কা সাহা অভিমানে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।
উল্লেখ্য,গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ‘সাহা ফাউন্ডেশন’ আয়োজিত বারদী লোকনাথ বাবার আশ্রমে তীর্থভ্রমনে প্রিয়াঙ্কা সাহা সপরিবারে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

প্রিয়াঙ্কা সাহা সবেমাত্র রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করে বেরিয়ে চাকরিতে যোগ দিয়েছেন। এরই মাঝে তিনি ভয়ংকর পথ বেছে নিয়েছেন। অজানা অভিমানে চলে গেছেন না ফেরার দেশে। জন্মদিনের রাত পার হতে না হতেই তিনি আত্মহত্যার ভয়ংকর পথ বেছে নিয়েছেন। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের ছাত্রী ছিলেন। সোমবার ছিল তার জন্মদিন। মঙ্গলবার ভোরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। হাসিখুশি ওই ছাত্রী সবার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতেন বলে সহপাঠীরা জানিয়েছেন। তবে কেন তিনি এমন পথ বেছে নিয়েছেন বিষয়টি স্পষ্ট নয়।
একটি সূত্রে জানা গেছে, ওর বিয়ে না হওয়া নিয়ে পরিবারের কোন সদস্যের কটু কথায় আবেগতাড়িত হয়ে নিষ্ঠুর এ পথ বেঁছে নেন।
কিছুদিন আগে ফেসবুকে একটি পোস্টে প্রিয়াঙ্কা লিখেছিলেন, ‘পরিবারের বোঝা হয়ে না থাকাই ভাল’!

বিভাগের এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর কাজী সুশমিন আফসানা বলেন, মেয়েটা হাসি খুশি ছিলো। কোনোদিন কারও সাথে শক্ত করে কথা বলতে শুনিনি। সম্প্রতি একটি স্কুলে শিক্ষক হিসেবে যোগ দিয়েছিল শুনেছি। কেন আত্মহত্যার পথ বেছে নিলো জানি না। মানতেই কষ্ট হচ্ছে।
বারদী তীর্থ ভ্রমনে বোন, ভগ্নিপতি, মাসি ও সফরসঙ্গীদের হাসিখুশী ও গল্পে মাতিয়ে রেখেছিলেন।
সাহা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সুভাষ সাহা প্রিয়াঙ্কা সাহার অকাল মুত্যুতে গভীর শোক ও পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ও তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন।
জানা যায়, মঙ্গলবার ভোররাতে সিরাজগঞ্জে নিজ বাসায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। ২০১৬-১৭ সেশনে বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগ থেকে মাস্টার্স পাশ করেন তিনি।

 

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/নিঃতঃ

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.