বৃহস্পতিবার ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ ২২ আগস্ট, ২০১৯ বৃহস্পতিবার

মেয়র-আইভীর-ব্যর্থতা-ও-আক্ষেপ

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের (নাসিক) মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী দুইটি বিষয়ে তাঁর ব্যর্থতা ও আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন। সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের বিষয়ে নিজের ব্যর্থতা ও কর্মকর্তাদের নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (৩১ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল এন্ড কলেজ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন তিনি। মিলনায়তনে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক ‘পরিচ্ছন্ন নগর গড়তে সমাজের ভূমিকা শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে আয়োজন করা হয়।

এ সময় সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ নিয়ে নিজের ব্যর্থতা প্রকাশ করে মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, আমি আমার অন্যান্য বিভাগ নিয়ে যতোটা না চিন্তিত তার চেয়ে বেশি চিন্তিত আমার স্বাস্থ্য বিভাগ নিয়ে। স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের সাথে এই ১৩-১৪ বছরে মিটিং করতে করতে আমি ক্লান্ত হয়ে গেছি। আর তাদের সঙ্গে কথা বলতে ইচ্ছে করে না। আমার হেলথ ডিপার্টমেন্টকে প্রতিদিন কোন না কোন কাজ মনে করিয়ে দিতে হয়, লিখে দিতে হয়। ফলাফল পাওয়া যায় না। আমার ব্যর্থতা আমি স্বীকার করলাম।
এ সময় তিনি আক্ষেপ করে আরো বলেন, আমি রাজশাহীতে পড়াশোনা করেছি। আমরা প্রতিমাসে আমাদের হোস্টেল নিজেরা পরিষ্কার করতাম। মাসে একদিন যার যার রুমের পাশাপাশি পুরো হোস্টেল পরিষ্কার করতাম। তার উদাহরণ নিয়ে সিটি কর্পোরেশন পরিষ্কার করার উদ্যোগ নিয়ে ছিলাম। মাসে একদিন সিটি কর্পোরেশন পরিষ্কার করবো। দুই একবার পরিষ্কার করে তারপর আর কারো খবর নাই। সরকারি চাকরি যারা করে তারা মনে করেন চাকরি হয়ে গেছে, তাদের তো আর কেউ দেখতে আসবে না। সরকারি কর্মকর্তারা মনে করে একবার চাকরি হয়ে গেলে আমাদের আর পাবে কে? আমার কাছে প্রতিদিন ওদের কাজের কৈফিয়ত আসে, রুটিন আসে কি করছে। আমি সেখানে কমেন্টস লিখে দেই, তাদের ডেকে কথা বলি। এরপরও মাঝে গ্যাপ থাকে, আবারও ডাকাই। কারণ আমাকে যে করতেই হবে। আমি আপনাদের ভোটে নির্বাচিত, বাচ্চাদের জন্য আমাকে পরিবেশ দিতেই হবে। আমরা এইভাবেই কাজ করেই যাচ্ছি।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এফএম এহ্তেশামূল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ ও প্রকল্প পরিচালক পরিষদের যুগ্ম সচিব সোহরাব হোসেন, জাপানের উন্নয়ন সংস্থা জাইকার প্রতিনিধি টাইসুকে টুকা ওকা, জাইকার প্রোগ্রাম অফিসার সানজিদা হক, সিফোরসি এর প্রতিনিধি মনি বালা, নাগরিক কমিটির সভাপতি এবি সিদ্দিক নাসিক ২২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সুলতান আহমেদ ভূইয়া, ১৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস, ১৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কবির হোসাইন, নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ কমল কান্তি সাহা, নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য সাংবাদিক আবদুস সালাম প্রমুখ।

 

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/নিঃতঃ

Categories: নারায়ণগঞ্জের খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.