বৃহস্পতিবার ৬ আষাঢ়, ১৪২৬ ২০ জুন, ২০১৯ বৃহস্পতিবার

লিভারপুলকে হারিয়ে সিটিজেনদের মনে ‘বিশ্বাস’ ফেরালেন গার্দিওলা

অনলাইন ডেস্ক: ম্যাচের আগে হতাশ কণ্ঠে বলেছিলেন, ‘ম্যানসিটিকে এখন কেউ বিশ্বাস করে না!’ খেলার পর কণ্ঠের স্বর পরিবর্তন হয়েছে পেপ গার্দিওলার। লিভারপুলের বিপক্ষে অলিখিত ফাইনালটা জিতে ম্যানচেস্টার সিটি কোচ বলছেন, তার সামনে প্রতিটি ম্যাচই এখন ফাইনাল।

বৃহস্পতিবার রাতে নিজেদের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে লিভারপুলকে ২-১ গোলে হারিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ জয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছে ম্যানসিটি। ম্যাচের আগে থাকা সাত পয়েন্টের ব্যবধানটা কমে দাঁড়িয়েছে চারে। ২১ ম্যাচে ৫৪ পয়েন্টে টেবিলের শীর্ষেই আছে লিভারপুল, সমান ম্যাচে সিটির পয়েন্ট ৫০। রয়েছে টেবিলের দুইয়ে।

ম্যাচ জেতায় পয়েন্ট ব্যবধান কমেছে। আর হারলে সেই ব্যবধানটা দাঁড়াতো দশে। তাই ম্যাচটাকে ফাইনালই ধরে খেলেছিলেন গার্দিওলা, ‘এই ম্যাচটা আমাদের কাছে ফাইনালের মতোই ছিল। কারণ হারলে শিরোপার স্বপ্ন প্রায় শেষই হয়ে যেত। জয় পাওয়া মানে আবারো লড়াইটা শক্ত হয়ে গেছে।’

কিন্তু ব্যবধান কমলে তো হবে না। নিজেদের প্রতিটি ম্যাচ জিততে তো হবেই, কামনায় থাকতে হবে যেন পয়েন্ট হারায় লিভারপুল। অন্যের দিকে না তাকিয়ে তাই শিষ্যদের নিজেদের খেলার দিকে মনোযোগ দিতে বলছেন ম্যানসিটি কোচ।

Advertisement

পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা দুই দলের মাঠের লড়াইটাও হয়েছে হাড্ডাহাড্ডি। ১৯ মিনিটে লিভারপুলের একটি বল গোললাইন থেকে বিপদমুক্ত করেন সিটি ডিফেন্ডার জন স্টোনস। এরপর ৪০ মিনিটে সার্জিও আগুয়েরোর গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

ম্যাচের ৬৪ মিনিটে সেই গোল শোধ দিয়ে উত্তাপ ফিরিয়ে আনেন রবের্তো ফিরমিনো। লেরয় সানের ৭২ মিনিটের গোলে শেষপর্যন্ত স্বস্তির জয় পায় ম্যানসিটি।

১৯৯০ সালের পর ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে শিরোপার স্বপ্ন দেখতে থাকা লিভারপুল সমর্থকদের কাছে এই হার বিশাল এক ধাক্কাই। মোহামেদ সালাহকে করা ফাউলে সিটি অধিনায়ক ভিনসেন্ট কোম্পানি লালকার্ড দেখতে পারতেন কিনা এনিয়েও প্রশ্ন আছে। যদিও রেফারি তাকে হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন। পরিস্থিতি মেনে নিয়ে সমর্থকদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন অলরেড কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ।

ক্লপ নিজেই বলছেন লালকার্ড দেখার মতো কোনো অপরাধ করেননি কোম্পানি, ‘ও(কোম্পানি) যদি সালাহকে আঘাত করতো তাহলে বাকি মৌসুমের জন্য সালাহকে মাঠের বাইরে থাকতে হতো। রেফারির জন্য এটা কঠিন সিদ্ধান্ত। আমি যেই অবস্থান থেকে দেখেছি রেফারি সেটা দেখেননি।’

 

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/নিঃতঃ

Categories: খেলাধূলা

Leave A Reply

Your email address will not be published.