সোমবার ৩ পৌষ, ১৪২৫ ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ সোমবার

মইনুল হোসেনই তারেক রহমানকে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দেন

বিশেরবাঁশী ডেস্ক: বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দণ্ডপ্রাপ্ত তারেক রহমানকে দেশ থেকে বিদেশে পালিয়ে যেতে তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সুযোগ করে দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

শনিবার রাজধানীর রেডিসন ব্লু হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি আরও বলেন, এই যে নির্বাচনের কয়েক মাস আগে বিএনপির জোট করেছে, তারা নাম দিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। কামাল হোসেন, মাহমুদুর রহমান মান্না- এই যাদের কোনো রাজনীতির পরিচয় নেই। যাদের নামও আমি জানি না। তারা এখন বিএনপির সঙ্গে হাত মেলালো।

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ২১ আগস্টের পরিকল্পনাকারী ও হুকুমদাতা তাকের রহমানকে গ্রেফতার করে সামরিক বাহিনী। কিন্তু কারা তাকে বেরিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দেন-এই ঐক্যফ্রন্টেরই লোকজন। এই মইনুল হোসেনই তারেক রহমানকে দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দেন। তখন থেকে তারা তারেক রহমানের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে বসে আসে। এই কামাল হোসেন, মাহমুদুর রহমান মান্না ও মইনুল হোসেন সেই ১/১১ থেকে তারেক রহমানের সঙ্গে যড়যন্ত্রে যুক্ত। এটা আজকে প্রমাণিত হলো। তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে সাজা দেওয়ারও ওয়াদা করেন জয়।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ বিএনপি না, আওয়ামী লীগ খুনী না, সন্ত্রাসীর দল না- আওয়ামী লীগ হলো স্বাধীনতার দল।আওয়ামী লীগ গণতান্ত্রিক দল। আওয়ামী লীগ মানুষের ভোটে ক্ষমতায় এসেছে। বন্দুকের নালা দিয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসেনি। তাই এই সুশীল বাবুদের হুমকিতে আওয়ামী লীগের কোনো যায় আসে না।

জয় আরও বলেন, আমি জরিপ করে দেখেছি, বাংলাদেশের মানুষ এখন আওয়ামী লীগকে ভোট দেবেই। বিএনপি-সুশীল-জামায়াত এক হয়েও এখন বাংলাদেশের কোনো শক্তি নাই আওয়ামী লীগকে ভোটে হারাতে পারে। তাই আমাদের আর কোনো ভয় নাই। আওয়ামী লীগের কোনো ভয় নাই। দেশ এগিয়ে এসেছে, দেশের মানুষ সুখে ও শান্তিতে আছে। আওয়ামী লীগ এখন কাউকেই ভয় পায় না। সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেই আওয়ামী লীগ এই অবস্থানে এসেছে। আওয়ামী লীগকে সরানো এতো সহজ নয়।

বিশেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/ইলিয়াছ

Categories: জাতীয়

Leave A Reply

Your email address will not be published.