সোমবার ৩ পৌষ, ১৪২৫ ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ সোমবার

নারায়ণগঞ্জে বোস কেবিনে তালা মেরে দিতে শহিদুল্লাহ বাহিনীর তান্ডব

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: ডিম ভেজে না দেয়ায় শত বছরের ঐতিহ্যবাহী নারায়ণগঞ্জ শহরের বোস কেবিন সন্ত্রাসী কায়দায় দলবল নিয়ে তালা মেরে বন্ধ করে দেয়া হুমকি দিয়ে তান্ডব চালায় উৎসব পরিবহণের কর্ণধার শহিদুল্লাহর লোকজন। ঘটনার আকস্মিকতায় আতংকিত হয়ে নাস্তা ফেলে অনেকেই চলে যায়।

শনিবার ১৭ নভেম্বর সকাল পোনে ১১ টার দিকে রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামীলীগ নেতা সংবাদকর্মীদের অনেকেই সকালের নাস্তা করার সময় বোস কেবিনে দুটি ডিম নিয়ে আসে উৎসব পরিবহণের এক হেলপার। এ সময় ডিম ভেজে দিতে বললে তা অস্বীকৃতি জানায় হোটেল মালিকে ছেলে তারক বোস। এতেই দল বল নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা চালায় উৎসব পরিবহণের সন্ত্রাসীরা । এ সময় প্রায় অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি আতংকিত হয়ে নাস্তা ফেলে উঠে আসে।

হামলা সম্পর্কে বোস কেবিনের ম্যানেজার সুজিৎ জানায়, সকাল সাড়ে ১০টায় একজন লোক দুটি ডিম হাতে করে এনে তা ভেজে দিতে বলে। বোস কেবিনে ডিম ভেজে দেয়ার কোন উপায় নাই বললে উৎসব বাসের হেলপার ধমকি দিয়ে জানায় ”এই ডিম উৎসব বাসের মালিক শহিদুল্লাহ খাবেন ।” ডিম ভেজে না দেয়ার ঘটনা মুঠোফোনে জানানো হলে মূহুর্তের মধ্যে প্রায় ২০/২৫ জন হামলা করে বোস কেবিন থেকে মালিক মেসিয়ারদের ধরে নেয়ার জন্য তান্ডব চালায়।

এ সময় মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নারায়ণগঞ্জ ৫ আসন থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী জিএম আরাফাত, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য ও আওয়ামীলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, ভিতরে বসে নাস্তা ছেড়ে উঠে আসেন। বোস কেবিনের বাইরে অনেকের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগের আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি আনিসুর রহমান দিপু, কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও বন্ধন পরিবহণের পরিচালক ইউয়ুব আলীসহ অনেকেই এমন তান্ডব দেখে হতভম্ব হয়ে পরেন। এমন তান্ডবের এক পর্যায়ে আওয়ামীলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম পরিবহণ সন্ত্রাসী আলতুর নেতৃত্বে আসা সকল সন্ত্রাসীদের থামানোর চেস্টা করে শহিদুল্লার মুঠোফোনে ফোন দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে এবং ফিরতি ফোন পেয়ে ডিম দুটি নিয়ে ফিরে যায় হামলাকারী সন্ত্রাসীরা।

ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে ৫২’র ভাষা আন্দোলন, ৭১’র মুক্তিযুদ্ধ এমনকি স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে শতবর্ষী বোস কেবিনের উপর কোন হামলা না হলেও আজ ডিম ভেজে না দেয়ায় এমন তান্ডবের ঘটনায় অনেককেই নিন্দা প্রকাশ করে নানা মন্তব্য করতে শোনা যায় ।

বোস কেবিনের মালিক প্রয়াত ভুলুবাবুর নাতি বর্তমান কর্ণদার তারক বোস ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান,এই ঘটনা উপস্থিত সকলেই দেখেছে। আমার আর কি বলার আছে ?

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: নারায়ণগঞ্জের খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.