শনিবার ৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৭ নভেম্বর, ২০১৮ শনিবার

না’গঞ্জ জেলার রাজনীতি এবং আমাদের ব্যর্থতা

  • এম সামাদ মতিন

প্রাচ্যের ডান্ডি নারায়ণগঞ্জ। রাজধানী ঢাকার পরে দেশের জাতীয় রাজনীতিতে নারায়ণগঞ্জ জেলার অবস্থান। নানা কারনেই নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে রাজনৈতিক তাৎপর্য্যপূর্ন। এ জেলা জন্ম হয়েছে দেশের বর্তমান ক্ষমতাশীন দল আওয়ামীলীগের। ভাষা আন্দোলনে দেশের প্রথম নারী নেতৃত্বে মিছিল হয় নারায়ণগঞ্জ জেলায়। এছাড়াও ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপাঠ তোলারাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররাজনীতি তো রয়েছে। অতীত-বর্তমান; দেশের চলমান রাজনৈতিক সংকটেও সামগ্রিক নারায়ণগঞ্জ বারবার কেন্দ্র বিন্দু তে। পক্ষান্তরে প্রাপ্যতার খাতায় শূন্যতা এবং ব্যর্থতা।
আসছে নির্বাচন। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হাওয়া লেগেছে ছোট-বড় দেশের প্রতিটি রাজনৈতিক দলের মাঝে। ভোটের রাজনীতি শুরু হয়েছে তৃণমূল।
দেশের প্রধান তিন রাজনৈতিক দলের আন্দোলন সংগ্রামে নারায়ণগঞ্জ জেলার নেতৃত্ব উল্লেখযোগ্য। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি), জাতীয় পার্টি (জাপা)সহ জোট-মহাজোট সর্বস্থানে রাজা লক্ষ্মী নারায়ণ এর নারায়ণগঞ্জ বঞ্চিত এবং অবহেলিত। তথাপি আমরা সাধারণ মানুষ তুলনামূলক উন্নয়নের রঙ গায়ে লাগাতে পারিনি।

তিন কারণ:

*স্থানীয় রাজনীতিতে অভ্যন্তরীন কোন্দল।
* তৃণমূল কর্মীদের সাথে জেলার নেতাদের দূরত্ব।
*সরকার পর্যায়ে আমলা তান্ত্রিক জটিলতা।

মূলকথা হলো শিল্পের নগরী নারায়ণগঞ্জ রাজস্ব পরিপ্রেক্ষিতে কতটুকই মর্যাদা পেলো রাষ্ট্রের কাছে। আমরা বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে ঐতিহাসিক নগর মাতা উপহার দিয়েছি। এ জেলায় রয়েছে জাতীয় বাম নেতা কমরেড মন্টু ঘোষ, বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলন হোতা এড.ইসমাইল। তবু কোন এক অদৃশ্য শক্তির রূপকল্পে আওয়ামী বিএনপি পার্টি জটের কারনে নগর উন্নয়ন এর সবুজকল্প লাল হয়ে রয়েছে।
চাহিদার বিপরীতে উন্নয়ন আমরা নারায়ণগঞ্জ বাসী’র কাছে আজো অধরা।
শিশু তক্বীর রক্তে ধোঁয়া জাতীয় কবির চারন ভূমি নারায়ণগঞ্জ পেয়েছি সেভেন মার্ডার বঞ্চনা। নগরীর অসহনীয় যানজটে অলস সময় ভাবনায় এলো– প্রাচীনতম রাজধানী সোনারগাঁয়ে সোনা রাজনীতিবিদ আমাদের দিতে পারেনি শীতলক্ষ্যা সেতু। বিগত বিএনপি–জামাত জোট সরকার ভিত্তি দাঁড় করলেও বাস্তব চিত্রে সাদা কালো ক্যনভাস। অন্যদিকে জাতীয়পার্টি এমপি মরহুম নাসিম ওসমানের বন্দর ঘাটে ফেরী চাঁপা ফাইল বর্তমান এক’ই দলের সাংসদ ভাই সেলিম ওসমান উত্তরনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছেন।

বড় স্যালুকাস আমার নারায়ণগঞ্জ। নগরে ফুটওভার ব্রীজ নেই, মাদক -অপরাধীদের দৌড়ত্বে জীবনের নিশ্চয়তা নেই। নাগরিকের অধিকার বঞ্চিত হাহাকার শোনার কেউ নেই। আছে স্বপ্ন -আশ্বাস- প্রত্যশা। একে অন্যের উপর দ্বায় চাপতে এবং নিজের দ্বায়বদ্ধাতা এড়াতে ব্যস্ত রাজনৈতিক, পেশাজীবিরা।
সম্প্রতি কোঠা বাতিল করে মাননীয় প্রধাণমন্ত্রী আন্দোলন করা জন্য বলেছে। এটা হয়তো আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে জনগনকে নির্বাচন ভাবনা বিমুখ করার একটা কৌশল। কিন্তু তথ্য প্রযুক্তি আইন আমাদের শ্বাস রূদ্ধ করেছে। স্যোসালমিডিয়া সচেতন জনগোষ্ঠির ভাবনার এখনি সময়।
বাংলাসনের প্রর্বত্যক শাহ্ ফতেউল্লার ফতুল্লা, রূপগঞ্জ, সদর, বন্দর, সিদ্ধিরগঞ্জ, আড়াইহাজার এই পাঁচটি আসনের জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়ন চালচিত্র তথাপি সারাদেশে দৃশ্যমান পরিস্থিতি নিয়ে আমাদের সকলের একটু চিন্তা করা উচিৎ।

লেখক:

সম্পাদক,
www.bdnewseye.com

সভাপতি,
ফতুল্লা প্রেস ক্লাব ।
msamadmatin@yahoo.com
মোবা:+8801816951561,+8801535784686

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: নারায়ণগঞ্জের খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.