শুক্রবার ১০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ ২৪ মে, ২০১৯ শুক্রবার

স্বামী-স্ত্রীর পারস্পরিক দায়িত্ব

বিষেরবাঁশী ডেস্ক: মহান আল্লাহ নারী-পুরুষের মাঝে এক বিস্ময়কর নিবিড় সম্পর্ক গড়ে দিয়েছেন। বানিয়েছেন একজনকে আরেকজনের পরিপূরক। ঘোষণা দিয়েছেন তারা পরস্পর ‘পোশাক’তুল্য। পোশাক যেমন মানুষের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে, তেমনি স্বামী-স্ত্রী পরস্পরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। আল্লাহ তায়ালা এরশাদ করেছেন, ‘তারা (স্ত্রীরা) তোমাদের (স্বামীদের) পরিচ্ছদ এবং তোমরা তাদের পরিচ্ছদ।’ (সূরা বাকারা : ১৮)
উত্তম পুরুষ
যেহেতু মানুষের প্রকৃত রূপ প্রকাশ পায় নিজ পরিবারের কাছে, তাই রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেনÑ ‘তোমাদের মধ্যে সেই ব্যক্তি উত্তম, যে নিজের পরিবারের কাছে উত্তম। আর আমি তোমাদের পরিবারের চেয়ে আমার পরিবারের কাছে অধিক উত্তম।’ (ইবনে মাজাহ : ১৯৭৭)
জান্নাতি নারী : চরিত্রবান, লজ্জাশীল, ভদ্র ও বহুগুণের অধিকারী নারীরাই সবার প্রিয় হয়ে থাকে। তাদের জান্নাতে যাওয়াও পুরুষের তুলনায় সহজ। কোনো মোমিন নারী কবিরা গোনাহ থেকে মুক্ত থেকে বা কবিরা গোনাহ হয়ে গেলে তাওবা করে নি¤েœাক্ত চারটি কাজ যথাযথভাবে করলে (অগ্রবর্তী জান্নাতিদের সঙ্গে) জান্নাতে প্রবেশ করবে : (১) পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ সঠিকভাবে আদায় করা। (২) রমজান মাসের রোজা রাখা। (৩) শরিয়তের গ-ির মধ্যে থেকে স্বামীকে খুশি রাখা। (৪) পর্দায় থেকে নিজের ইজ্জত-আব্রুর পরিপূর্ণ হেফাজত করা। (মুসনাদে আহমাদ : ১৬৬১)
স্ত্রীর প্রতি স্বামীর কর্তব্য
স্ত্রীর প্রতি স্বামীর কর্তব্য অনেক। তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলোÑ
(১) সামর্থ্য অনুযায়ী স্ত্রীর ভরণপোষণ ও চিকিৎসা ইত্যাদির ব্যবস্থা করা। (২) স্ত্রীকে দ্বীনি মাসয়ালা-মাসায়েল শেখাতে থাকা। (৩) স্ত্রীর সঙ্গে ভালো ব্যবহার করা। ছোটখাটো বিষয় নিয়ে রাগারাগি না করা। (৪) স্ত্রীর মাহরাম আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে মাঝেমধ্যে দেখা-সাক্ষাতের সুযোগ দেওয়া। (৫) স্ত্রীর প্রতি খারাপ ধারণা না করা। তার ব্যাপারে একেবারে উদাসীনও না থাকা। (৬) স্ত্রীকে অপচয়ের সুযোগ না দেওয়া। (৭) তার মানবিক চাহিদা পূরণ করা; তা সাধারণভাবে সপ্তাহে একবার হওয়া ভালো। প্রতি চার মাসে একবার হওয়া জরুরি। (৮) সামর্থ্য অনুযায়ী কিছু হাতখরচ দেওয়া। (৯) গোনাহ হতে পারে এমন কোনো অনুষ্ঠানে যেতে না দেওয়া। (১০) অসাবধানতায় কোনো ভুলত্রুটি হয়ে গেলে ক্ষমা করে দেওয়া।
স্বামীর প্রতি স্ত্রীর কর্তব্য
স্ত্রীর প্রতি স্বামীর কর্তব্য অনেক। তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলোÑ
(১) যথাযথভাবে স্বামীর আনুগত্য করা। স্বামী যেভাবে পছন্দ করে সেভাবে সাজসজ্জা করা। নিজের আদব-আখলাক ও সেবার মাধ্যমে তার মন জয় করা। তবে শরিয়ত বিরোধী কোনো কাজ হলে অপারগতা প্রকাশ করা। (২) স্বামীর সামর্থ্যরে অতিরিক্ত কোনো চাপ সৃষ্টি না করা। (৩) স্বামীর অনুমতি ছাড়া অন্য কাউকে কোনো বস্তু না দেওয়া। (৩) স্বামীর অনুমতি বা অনুমোদন ব্যতিরেকে বাড়ির বাইরে না যাওয়া। (৪) বিনা অনুমতিতে নিজের কাউকে স্বামীর ঘরে আসতে না দেওয়া। (৫) স্বামী বিছানায় আহবান করলে শরয়ি কোনো বাধা না থাকলে তার আহ্বানে সাড়া দেওয়া। (৬) স্বামীর দ্বারা শরিয়ত বিরোধী কোনো কাজ প্রকাশ পেলে আদবের সঙ্গে তা বুঝিয়ে বলা। (৭) স্বামীকে মুরুব্বি হিসেবে মান্য করা। তার সঙ্গে উঁচু আওয়াজে তর্ক না করা। (৮) কারও সামনে স্বামীর বদনাম না করা। (৯) মনেপ্রাণে শ্বশুর-শাশুড়ির সেবা করা। (১০) সন্তানদের মায়া-মমতার সঙ্গে লালন পালন করা। সব কাজে সুন্নত তরিকা শিক্ষা দেওয়া।
স্ত্রী স্বামীর অবাধ্য হলে করণীয়
স্ত্রী যদি স্বামীর অবাধ্য হয়, তাহলে প্রথমত, নসিহতের মাধ্যমে তাকে বুঝাতে হবে। ছোটখাটো সব ভুল ক্ষমা করে দিতে হবে। দ্বিতীয়ত, নসিহতে কাজ না হলে একই ঘরে রেখে বিছানা আলাদা করে দিতে হবে। তৃতীয়ত, এ দ্বিতীয় পদ্ধতিতে কাজ না হলে তাকে এমনভাবে হালকা শাস্তি প্রদান করতে পারবে, যাতে শরীরের কোথাও যখম বা দাগ না হয়। মনে রাখতে হবে, এই পদ্ধতিটি জায়েয হওয়া সত্ত্বেও কোনো নবী (আ.) তা করেননি। নবীজি (সা.) এরশাদ করেছেন, আমার উম্মতের ভদ্র শ্রেণির লোকেরা স্ত্রীকে মারধর করে না। (মাজমাউজ জাওয়ায়েদ : ৪/৩৩২)। চতুর্থত, এতেও কাজ না হলে উভয় পক্ষের মুরুব্বিদের দ্বারা সালিশির মাধ্যমে সমাধান করাবে। তাতেও কাজ না হলে খুব ধীরেসুস্থে, ভেবেচিন্তে আলেমদের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের বাতানো পদ্ধতিতে তালাক দিয়ে দিতে পারবে। (সুরা নিসা : ৩৪; রদ্দুল মুহতার : ৩/১৯০, আল মুগনি : ৭/২৪২)।
উল্লেখ্য, রাগের মাথায় তালাক দিলে তালাক হয়ে যায়। মুখে মুখে তালাক দিলেও তালাক পতিত হয়; লিখিত হওয়া জরুরি নয়। একসঙ্গে তিন তালাক দিলে তিন তালাকই পতিত হয়। এমনিভাবে তালাক দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তা কার্যকর হয়ে যায়, তিন তালাক কার্যকর হওয়ার জন্য ৯০ দিন অতিবাহিত হতে হবেÑ এমন কোনো শর্ত নেই। স্বামী স্ত্রী হিসেবে তাদের সব সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যাবে। কোরআন হাদিস ও ফিকাহর এই আইনের সামনে কোনো আইন বাধা হতে পারবে না।

বিষেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/হৃদয়

Categories: লাইফস্টাইল

Leave A Reply

Your email address will not be published.