রবিবার ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ রবিবার

তিন জনের গুলিবিদ্ধ লাশ মিলল পূর্বাচলে

  • স্বজনদের অভিযোগ দুই দিন আগে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তাদের ধরে নিয়ে যায়
    নিহতদের একজন ডিশ ব্যবসায়ী অপর দুই জন ঝুট ব্যবসায়ী

বিশেরবাঁশী ডেস্ক: একদিন আগে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটে একটি বাস থেকে তিন যুবককে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে আটক করে নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের স্বজনরা গাবতলীতে বাস কাউন্টারে খোঁজ নিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হয়। পরে শুক্রবার সকালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের পূর্বাচল এলাকার একটি ব্রিজের নিচে ওই তিন যুবকের গুলিবিদ্ধ রক্তাক্ত লাশ পড়ে থাকতে দেখে পথচারীরা। এরা হলেন নূর হোসেন বাবু (২৯), তার ভায়রা শিমুল আজাদ (২৬) ও তাদের বন্ধু সোহাগ ভূঁইয়া (৩৪)। পূর্বাচলের আলমপূরা এলাকার ৯ নম্বর সেক্টরের ১১ নম্বর ব্রিজের নীচ থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহতদের মধ্যে বাবু ও শিমুল আজাদ রাজধানীর মুগদার মান্ডা এলাকার হাজীর বাড়ির ভাড়াটিয়া। তারা ভায়রা ভাই। লাশ উদ্ধারের সময় শিমুলের প্যান্টের পকেট থেকে ৬৫ টি ইয়াবা উদ্ধার করে পুলিশ। বাবু ও শিমুল মুগদা এলাকায় ঝুট ব্যবসা করতেন। আর সোহাগের বাড়ির মহাখালীর দক্ষিণপাড়ার নিকেতন বাজারে। ডিশ ব্যবসার পাশাপাশি তার একটি ফাস্ট ফুডের দোকান রয়েছে।

নিহত এই তিন যুবকের স্বজনদের অভিযোগ, মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটে একটি বাস থেকে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে ওই তিন যুবককে উঠিয়ে নিয়ে হত্যা করা হয়। নিহতরা হলেন, ঢাকা জেলার মহাখালীর নিকেতন বাজার এলাকার মৃত শহিবুল্লাহর ছেলে সোহাগ, ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ থানার গোরেলা এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে শিমূল আজাদ ও মুন্সিগঞ্জ জেলার টুঙ্গিবাড়ির থানার পাইকপাড়া এলাকার মৃত আঃ ওহাবের ছেলে নূর হোসেন বাবু।  নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) ফারুক হোসেন বলেন, পূর্বাচল উপ-শহরের আলমপূরা এলাকার পূর্বাচল তিনশ’ ফিট রোডের শেষপ্রান্তে অবস্থিত একটি সড়ক ওভারব্রিজের নিচে তিন যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকার লোকজন পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে। নিহত প্রত্যকের মাথা ও বুকসহ একাধিকস্থানে গুলির চিহ্ন রয়েছে। লাশগুলো উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়ে দেয় পুলিশ।

রূপগঞ্জ থানার এসআই ফরিদ আহম্মেদ জানান, একটি লাশের প্যান্টের পকেট থেকে ভজিটিং কার্ড উদ্ধার করা হয়। ভিজিটিং কার্ডে উল্লেখিত মোবাইল ফোন নম্বরে কল করা হলে নিহতদের পরিবারের সদস্যরা এসে লাশ সনাক্ত করেন।  রূপগঞ্জ থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির বলেন, নিহত তিন যুবকের পরনে ছিল প্যান্ট, শার্ট ও গেঞ্জি। দেখে মনে হয়েছে অন্য কোথাও হত্যার পর লাশগুলো এখানে ফেলে যাওয়া হয়েছে। সেখানে জেলা পুলিশের কোনো অভিয়ান চালানো হয়নি। অন্য কোনো বাহিনী তাদের আটক করেছিল কি না, সে তথ্য আমাদের কাছে নেই। নিহত ব্যবসায়ী শিমুলের স্ত্রী আয়েশা আক্তার আন্নি জানান, মুগদার মান্ডায় একটি বাড়িতে তার স্বামী শিমুল ও সন্তানসহ বসবাস করতেন। নুর হোসেন বাবু তার স্বামীর ভগ্নিপতি। মহাখালীর সোহাগ তাদের বন্ধু। তারা পার্টনারশিপে ব্যবসা করেন। দুই/তিন দিন আগে তারা তিনজন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার গোরেলা গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে যায়। বুধবার রাতেই তারা ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। রাতেই মোবাইল ফোনে তার স্বামীর সঙ্গে কথা হয়েছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে তার স্বামী ঢাকায় না ফিরলে তিনি মোবাইল ফোনে কল করেন। মোবাইল ফোনটি বন্ধ পান। পরে তিনি গাবতলীতে বাস কাউন্টারে গিয়ে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন যে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরীঘাটের সামনে ডিবি পুলিশ বাসটি থামায়। ডিবি পুলিশের জ্যাকেটপরা ১৫ থেকে ১৬ জন ব্যক্তি বাসে তল্লাশি চালায়। বাস থেকে তিন যুবককে আটক করে নিয়ে যায়। পরে শুক্রবার সকালে রূপগঞ্জ থানা পুলিশের মাধ্যমে তার স্বামীসহ ৩ জন নিহতের সংবাদ পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে এসে লাশগুলো সনাক্ত করেন।

নিহত শিমুলের স্ত্রী অভিযোগ করেন, পুলিশ তাদের আটক করে অজ্ঞাত কারণে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় তিনি রূপগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করবেন।  নিহত সোহাগের ভাই শাওন জানান, সোহাগ ঢাকার মহাখালী এলাকায় স্যাটেলাইট কেবল নেটওয়ার্কের ব্যবসা করার পাশাপাশি ফাস্ট ফুডের দোকান চালাতেন। গত বুধবার রাত থেকে সোহাগের কোনো খোঁজ পাচ্ছিলেন না তারা। সকালে ফেসবুকে লাশ উদ্ধারের খবর আর ছবি দেখে তারা নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন।  স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করে, কাঞ্চন থেকে কুড়িল বিশ্বরোড পর্যন্ত প্রায় ১৪ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ৩’শ ফিট রোড। এ সড়েকর উভয় পাশে তেমন কোন জনবসতি নেই। ঢাকার ভ্রমন পিপাসু মানুষ ৩’শ ফিট রোড ও তার আশাপাশে ঘুরতে আসেন। রাত ১০টার পর থেকেই এলাকাটি সুনশান নিরবতা নেমে আসে। অপরাধীরা নিরাপদ স্থান হিসেবে এ এলাকাটিকে ব্যবহারও করতে পারে।

বিশেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/ইলিয়াছ

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.