শুক্রবার ২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ শুক্রবার

ভিএআর প্রযুক্তিতে ২-১ গোলে জয় পেল ফ্রান্স

অনলাইন ডেস্ক: রাশিয়া বিশ্বকাপ আসরে তৃতীয় দিনের প্রথম ম্যাচ আজ মাঠে নেমেছে ফ্রান্স ও অস্ট্রেলিয়া। ০-০ স্কোরে শেষ হয় তাদের ম্যাচের প্রথমার্ধ। তবে দ্বিতীয়ার্ধে দেখা গেল অন্য রকম রোমাঞ্চ। দুই পেনাল্টিতে অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যান আর পল পগবার গোলে ২-১ গোলে ম্যাচটি জিতেছে ফ্রান্স। অস্ট্রেলিয়ার একমাত্র গোলটি করেন মাইল জেডিনাক।
ম্যাচটি শুরুর দিকে ফ্রান্স নিজেদের রক্ষণভাগ ঠিক রেখে অজিদের মাঠে আক্রমন চালাচ্ছিল বার বার। কিন্তু অজিদের রক্ষণভাগ ভেদ করে এগুতে পারেনি তারা। ফরাসি দাপট দেখিয়েছেন যান্তোনিও গ্রিজম্যান, কিলিয়ান এমবাপেরা কিন্তু তাদের চেষ্টায় প্রথমার্ধ খোলেনি ফরাসি গোলের খাতা।
ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই অস্ট্রেলিয়াকে আক্রমণ করে ফ্রান্স। ডান প্রান্ত দিয়ে কিলিয়ান এমবাপের শট আটকে দেন অস্ট্রেলিয়ার গোলরক্ষক ম্যাথিউ রায়ান। এর ঠিক তিন মিনিট পর বক্সের বাইরে থেকে নেয়া পল পগবার ফ্রি-কিকও সহজেই রুখে দেন তিনি। অষ্টম মিনিটে গ্রিজম্যানের হেডও জাল পায়নি।
প্রথমার্ধ অনেক সুযোগ পেয়েছিল দেশমের দল। কিন্তু সদ্ব্যবহার করতে পারেননি তারা। ১৮তম মিনিটে সুযোগ পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়াও। কিন্তু ম্যাথিউ লেকির হেড গোলবারের ডানদিক দিয়ে চলে যায়। ফলে ০-০ স্কোরে শেষ হয় ম্যাচের প্রথমার্ধ।
প্রথমার্ধে ০-০ স্কোর যে মেনে নেবে না কোনো দল তা ছিল অনুমেয়। তাইতো মরিয়া হয়ে খেলেছে পল পগবা ও ম্যাথিউ লেকিরা। পর পর ফাউল করতে থাকে দুউ দলই। এর মধ্যে সমবচেয়ে বড় দূর্ঘটনা ঘটান অজি খেলোয়াড় জস রিসডন। ৫৬ মিনিটে গ্রিজম্যানকে ডি বক্সের মধ্যে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখেন তিনি। ম্যাচ রেফারি ভিডিও অ্যাসিসটেন্ট রেফারির (ভিএআর) সাহায্য নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত জানান। সুযোগ পেয়ে শট নিয়ে অজি জারেল গোল পুরোতে সময় নেননি গ্রিজম্যান।
৬১ মিনিটে ফরাসি খেলোয়াড় উমতিতির ভুলে সুযোগ পায় অজিরা। পেনাল্টি এরিয়ায় ইচ্ছে করে হাত বাড়িয়ে গোল শোধের সুযোগ দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়াকে। মাইল জেডিনাক-ই বা ভুল করবেন কেন? হুগো লরিসকে এক কোনায় ফেলে বল জড়ান ফরাসি শিবিরে।
১-১ সমতা নিয়ে এগিয়ে চলছিল ম্যাচ। হঠাৎ ম্যাচের ৭০তম মিনিটে গ্রিজম্যানকে উঠিয়ে নেন ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশম। বদলি হিসেবে মাঠে নামেন অলিভার জিরু। ম্যাচের বয়স যখন ৮০ মিনিট তখনই তার পাস থেকেই ডি বক্সের মধ্যে বল পেয়ে যান পগবা। ব্যাস! বল যখন পলের পায়ে গোল না হয়ে যায় কই। অজিদের কোনো সুযোগ না দিয়েই তাদের জালে বলটি ছোঁড়েন জোরালো শটে। বল লাগে বারে। পড়ার সময় কিন্তু গোললাইন ছুঁয়ে একটু বাঁয়ে সরে যেতেই ফরাসি উল্লাসে ফেটে পড়ে পুরো স্টেডিয়াম।

 

বিষেরবাঁশী.কম/ডেস্ক/নিঃতঃ

Categories: খেলাধূলা

Leave A Reply

Your email address will not be published.