বৃহস্পতিবার ৫ আশ্বিন, ১৪২৫ ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বৃহস্পতিবার

রোহিঙ্গাদের কারণে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ১০ কোটি টাকার ঈদ উপহার

বিশেরবাঁশী ডেস্ক: মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের কারণে কক্সবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় লোকদের জন্য ঈদ উপহার পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রায় ১০ কোটি টাকার ঈদ উপহার পাঠিয়েছেন তিনি। এতে নগদ টাকা ছাড়াও বিভিন্ন প্রকার পণ্য সামগ্রী রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ত্রাণ তহবিল থেকে পাঠানো এই উপহার আজ মঙ্গলবার (১২ জুন) থেকে বিতরণ শুরু হয়েছে। বেলা ১১টার দিকে কক্সবাজারের উখিয়ায় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা কলেজ মাঠ প্রাঙ্গণে আনুষ্ঠানিকভাবে উপহার সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছে জেলা প্রশাসন।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, বলপ্রয়োগে বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিকদের কারণে উখিয়া ও টেকনাফের সাধারণ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বৃদ্ধি, শ্রমবাজার সংকোচনসহ স্থানীয়দের সামাজিক ও অর্থনৈতিক জীবনযাত্রা ব্যাপকভাবে প্রভাবিত হয়েছে। এসব বিষয় বিবেচনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই এলাকার বাসিন্দাদের জন্য তার ব্যক্তিগত ত্রাণ তহবিল থেকে ১০ কোটি টাকার ঈদ উপহার বরাদ্দ দেন। এসব টাকা কক্সবাজারের উখিয়া, টেকনাফসহ জেলার ৩৩ হাজার ৩৩৪টি পরিবারের মধ্যে বিতরণ করা হচ্ছে। কক্সবাজারবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ঈদ উপহার হিসেবে নগদ এক হাজার থেকে দুই হাজার টাকা, সুগন্ধি পোলাউ এর চাউল, চিনি, গুড়া দুধ, লাচ্ছা সেমাই, সয়াবিন তেল, সরবতের বোতল, লুঙ্গি, শাড়ি ও বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী রয়েছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কাজি আব্দুর রহমান জানান, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার সামগ্রী আমরা আজ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিতরণ শুরু করেছি। বরাদ্দকৃত ১০ কোটি টাকার মধ্যে উখিয়া উপজেলার ১২ হাজার ৫শ’ পরিবারের মধ্যে দুই কোটি ৫০ লাখ, টেকনাফ উপজেলার ছয় হাজার পরিবারের মধ্যে এক কোটি ২০ লাখ টাকা বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়াও চকরিয়া উপজেলার তিন হাজার ৫৮০ পরিবারের মধ্যে ৭১ লাখ ৬০ হাজার, পেকুয়া উপজেলার এক হাজার ৮৩৪ পরিবারের মধ্যে ৩৬ লাখ ৬৮ হাজার, কুতুবদিয়া উপজেলার এক হাজার ৭৯০ পরিবারের মধ্যে ৩৫ লাখ ৮০ হাজার, মহেশখালী উপজেলার দুই হাজার ৮৩০ পরিবারের মধ্যে ৫৬ লাখ ৬০ হাজার, রামু উপজেলার দুই হাজার ৬৩০ পরিবারের মধ্যে ৫২ লাখ ৬০ হাজার ও কক্সবাজার সদর উপজেলার দুই হাজার ১৭০ পরিবারের মধ্যে ৪৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা বরাদ্দ হিসাবে ধরা হয়েছে। এসব পরিবারকে দুই হাজার টাকা করে নগদ দেওয়া হচ্ছে। একইভাবে প্রতিটি পরিবারের মাঝে দুই কেজি চাল, এক কেজি চিনি, ৫শ’ গ্রাম গুড়া দুধ, ২শ’ গ্রাম ওজনের ৪টি লাচ্ছা সেমাই’র প্যাকেট, এক লিটার সয়াবিন তেল, ৭৫০ মিলিলিটারের একটি বোতল, লুঙ্গি ও শাড়ি রয়েছে। মঙ্গলবার থেকে জেলার ৭১টি ইউনিয়নে একযোগে এসব উপাহার বিতরণ শুরু করা হয়েছে।’

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেন, ‘ধনীদের জন্য নয়, ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর এই উপহার। আজ (মঙ্গলবার) থেকে জেলার ৩৩ হাজার ৩৩৪টি পরিবারের মধ্যে এগুলো বিতরণ শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর এই ১০ কোটি টাকার মধ্যে নগদ ৬ কোটি ৬৬ লাখ ৬৮ হাজার নগদ বিতরণ হবে। এতে প্রত্যেকটি পরিবার এক হাজার থেকে দুই হাজার টাকা করে দেওয়া হচ্ছে।’ কক্সবাজারবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর পাঠানো ঈদ উপহার বিতরণ করেন ত্রাণমন্ত্রী

তিনি আরও বলেন, ‘পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে এসব উপহার সামগ্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা শোভিত খাম ও ব্যাগে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে। নিজ দেশ মিয়ানমারে নিপীড়নের শিকার হয়ে নব্বই দশক থেকেই সীমান্তবর্তী বাংলাদেশের কক্সবাজারে ঢুকেছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। তবে গত বছরের শেষ দিকে পাশবিকতার শিকার হয়ে এক সঙ্গে ঢুকেছে প্রায় ৭ থেকে ৮ লাখ রোহিঙ্গা। আগের অবস্থানকারীসহ এ সংখ্যা ছাড়িয়েছে প্রায় ১০ থেকে ১২ লাখে। এত সংখ্যক আশ্রিতদের কারণে স্থানীয় জনগোষ্ঠী চরম ক্ষতির মুখে পড়েছে। এর আগেও উখিয়া-টেকনাফের চাষিদের জন্য সরকার আধুনিক ধানমাড়াই মেশিন সরবরাহ করেছে। এবার ঈদুল ফিতরে উপহার হিসেবে দেওয়া হচ্ছে প্রায় ১০ কোটি টাকার সহায়তা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ উপহার জেলার ৩৩ হাজার পরিবারকে প্রদান করা হচ্ছে।’

মঙ্গলবার সকালে উখিয়া বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা কলেজ মাঠ প্রাঙ্গণে প্রধানমন্ত্রীর এই উপহার সামগ্রী বিতরণ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। এসময় ত্রাণ সচিব শাহ কামাল, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল মান্নান, কক্সবাজার শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. আবুল কালাম, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন, কক্সবাজার পুলিশ সুপার ড. একেএম ইকবাল হোসেন ও উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

বিশেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/ইলিয়াছ

Categories: সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.