বুধবার ৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ২১ নভেম্বর, ২০১৮ বুধবার

রংপুরের সব বেসরকারি হাসপাতাল ক্লিনিকে চিকিৎসা সেবা বন্ধ

বিশেরবাঁশী ডেস্ক: শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় অপারেশনকারী চিকিৎসককে গ্রেফতারের প্রতিবাদে রংপুর নগরীর সকল বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চিকিৎসা সেবা বন্ধ করে দিয়েছে চিকিৎসকরা। সোমবার সকাল থেকে এ কর্মসূচি পালন করছে আন্দোলনকারী চিকিৎসকরা। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে চিকিৎসা নিতে আসা রোগিরা। এরআগে শনিবার ভুল চিকিৎসায় শিশু মৃত্যুর অভিযোগে শিশুটির বাবার দায়ের করা মামলায় পুলিশ নগরীর সেন্ট্রাল ক্লিনিকের চিকিৎসক ও প্রাইম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক কান ও গলা রোগ বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডা.আব্দুল হাইকে গ্রেফতার করে।

এই ঘটনার জেরে গতকাল রোববার বেলা ২টা থেকে নগরীর সব বেসরকারি হাসপাতাল বন্ধ করে চিকিৎসক ড. আব্দুল হাই এর মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করে চিকিৎসকরা। অবশ্য রাত ৮টা থেকে তারা শুধুমাত্র জরুরী বিভাগ ছাড়া সকল বিভাগে চিকিৎসা সেবা দেয়া বন্ধ রাখেন। প্রসঙ্গত, শনিবার দুপুরে গাইবান্ধা জেলার খামারবাড়ি এলাকার রেজাকুল হকের ছেলে সিয়ামকে (৬) গলার টনসিল অপারেশনের জন্য ভর্তি করা হয় রংপুর মহানগরীর সেন্টাল ক্লিনিকে। সেখানে নাক কান ও গলা রোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর আব্দুল হাইয়ের তত্ত্বাবধানে অপারেশন করার সময় অপারেশন থিয়েটারেই সিয়ামের মৃত্যু। ঘটনা জানাজানি হলে পরিবারের লোকজন ক্লিনিক ঘেরাও করে ভাংচুর চালায়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। এ ঘটনায় মামলা হলে পুলিশ অপারেশনকারী চিকিৎসক ডা. আব্দুল হাইকে গ্রেফতার করে।

এদিকে রংপুর চিকিৎসক সমাজের আহবায়ক ডা. নুররুন্নবী লাইজু জানান, সেন্ট্রাল ক্লিনিকে শিশু মৃত্যুর ঘটনাটি এখনও তদন্ত করা হয়নি। ভুল অপারেশন হয়েছে কিনা তাও প্রমাণ হয়নি। কিন্তু পুলিশ উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে রংপুরের একজন বিশিষ্ট চিকিৎসককে এভাবে গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়ায় আমরা ক্ষুব্ধ।

রংপুর বেসরকারী হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনসিস সমিতির নেতা গুড হেলথ হাসপাতালের মালিক ডা. মামুনুর রশিদ মামুন জানান, সেন্ট্রাল ক্লিনিকে ওই শিশুটি এ্যানেসথেসিয়া দেয়ার পরই মারা গেছে। তাকে অপারেশন করাই হয়নি। অথচ ডা. আব্দুল হাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যাতে চিকিৎসকদের সম্মান ক্ষুণ্ন করা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রশাসন যত দ্রুত তাকে ছেড়ে দিবে আমরা তত দ্রুত রোগিরে সেবায় ফিরে যাবো।

এব্যাপারে রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুর রহমান সাইফ জানান, সেন্ট্রাল ক্লিনিকে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় মামলার প্রেক্ষিতে ডা. আব্দুল হাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে কোর্টের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

বিশেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/ইলিয়াছ

Categories: অপরাধ ও দুর্নীতি,সারাদেশ

Leave A Reply

Your email address will not be published.