বুধবার ৯ কার্তিক, ১৪২৫ ২৪ অক্টোবর, ২০১৮ বুধবার

সাকিবের হায়দরাবাদের কাছে পাত্তাই পেল না দিল্লি

বিশেরবাঁশী ডেস্ক: ম্যাচের শুরুতেই মনে হয়েছিল উইকেটটি একটু ধীর গতির। সাকিবের প্রথম ওভারের পর সেটাই সত্য মেনে নিয়েছিল সবাই। এমন উইকেটে রান তোলার কাজটা কঠিন। ১৮৮ রানের লক্ষ্য দিতে পেরে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসও সন্তুষ্ট চিত্তে ফিল্ডিং করতে নেমেছিল। কিন্তু আত্মবিশ্বাসী এক দলের সামনে এত বড় লক্ষ্যও কোনো বাধা হতে পারেনি। মাত্র ১ উইকেট হারিয়ে ৭ বল হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে গেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।
১৮৭ রান তাড়া করতে নেমে হায়দরাবাদের শুরুটা খুব বাজে হয়েছিল। দ্বিতীয় ওভারেই দলীয় ১৫ রানে ফিরে গেছেন অ্যালেক্স হেলস। কিন্তু এত বড় ধাক্কাও মামুলি হয়ে গেছে শিখর ধাওয়ান ও কেন উইলিয়ামসনের কাছে। প্রথম দুই ওভার একটু দেখেশুনে খেলেছেন দুজন। থিতু হতে ওটুকু সময়ই শুধু দরকার হয়েছে তাদের।

এরপরই আক্রমণে গেছেন ধাওয়ান। অন্যপ্রান্তে ঠান্ডা মাথায় বল প্রতি রান তুলছিলেন উইলিয়ামসন। তবে খানিক পরেই ধাওয়ানকে অনুসরণ করে আগ্রাসী হয়েছেন অধিনায়কও। এতেই ১১তম ওভারেই এক শ পেরিয়ে যায় হায়দরাবাদ। ধাওয়ানের ফিফটি এসেছে এরপরই। ৩০ বলে পঞ্চাশ ছুঁতে ৬ চার ও ২ ছক্কা মেরেছেন। উইলিয়ামসনের ফিফটি ছুতে অবশ্য ৮ বল বেশি লেগেছে। চার ও ছক্কাও মেরেছেন ধাওয়ানের চেয়ে একটি করে কম।

শেষ পর্যন্ত ৫৩ বলে ৮৩ রান করে দল জিতিয়েই ফিরেছেন উইলিয়ামসন। তাঁর ইনিংসে ছিল ৮ চার ও ২ ছক্কা। এবারের আইপিএলের রেকর্ড ১৭৬ রানের জুটিতে তাঁর সঙ্গী ধাওয়ান অবশ্য চার-ছক্কায় এগিয়ে ছিলেন। ৯ চার ও ৪ ছক্কায় ৫০ বলে ৯২ রান ধাওয়ানের। মাত্র ৮ রানের জন্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া হয়েছে ধাওয়ানের।

এর আগে ১৫ চার ও ৭ ছক্কায় মাত্র ৬৩ বলে ১২৮ রানের অপরাজিত ইনিংসে দলকে ১৮৭ রান এনে দিয়েছিলেন ঋষভ পন্ত। ইনিংসের শেষ ওভারে ভুবনেশ্বর কুমারের শেষ ৫ বলে ২ চার ও ৩ ছক্কা মারার মতো অবিশ্বাস্য এক কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন ২০ বছর বয়সী পন্ত। কিন্তু দলকে জেতাতে সেটাও যথেষ্ট হলো না।

বিশেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/ইলিয়াছ

Categories: খেলাধূলা

Leave A Reply

Your email address will not be published.