শনিবার ৯ আষাঢ়, ১৪২৫ ২৩ জুন, ২০১৮ শনিবার

পলিথিনের নৌকায় বাড়ি যাচ্ছে কৃষকের স্বপ্ন

বিশেরবাঁশী ডেস্ক: ধান কাটা শেষে সেগুলো পলিথিনের নৌকায় করে পানিতে ভাসিয়ে বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছেন কৃষকেরা। কারণ, এটাই তাদের কাছে সহজ মাধ্যম। একসঙ্গে অনেক ধানও পরিবহন করা যায়। গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়ায় এমন চিত্রের দেখা মিলেছে।

গোপালগঞ্জের সর্বত্র সবেমাত্র বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। এদিকে আকাশেও মেঘের ঘনঘটা। একটু মেঘ হলেই অঝোরে বৃষ্টি নামে। সঙ্গে ঝড়ো হাওয়া। ইতোমধ্যে শিলাবৃষ্টি আর ঝড়ে কোটালীপাড়ার হাজারো কৃষকের কোটি টাকার স্বপ্ন তরমুজ ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। এখন বাকি আছে শেষ সম্বল বোরো ধান।

কোটালীপাড়া উপজেলার কিছু নিচু এলাকায় বৃষ্টি ও খালের পানি এক হয়ে পাকা ধান পানিতে তলানো প্রায়। তাই কৃষকেরা পাকা ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। কিছু কিছু নিচু এলাকায় অল্প পানি হওয়াতে না চলে নাও, না চলে পাও। আবার মাথায় করে কাটা ধান তুলতেও সমস্যা হচ্ছে। কারণ, পা নরম মাটিতে দেবে যায়। তাই এখানকার কৃষকেরা পাকা ধান কাটার পর জমি থেকে পরিবহনের জন্য অল্প খরচের একটা অভিনব কায়দা বের করেছেন। তা হলো পলিথিনের নৌকা।

কৃষকেরা জানান, বাজার থেকে দুই থেকে তিন কেজি পলিথিন কিনে লম্বা করার পর ভেতরে কিছু হাওয়া ঢুকিয়ে দুই পাশে শক্ত করে বেঁধে দেওয়া হয়। এরপর পলিথিনের মাঝের জায়গাটায় ধানের আঁটি ভর্তি করে রাখা হয়।তখন ঠিক একটি নৌকার মতো হয়ে যায়। সেজন্য এটাকে পলিথিনের নৌকা বলা হয়।

কৃষকেরা বলছেন- ধান বোঝাই করে পানিতে ভাসানো হয়। তারপর হাঁটু পানি থেকে শুরু করে খালের গভীর পানির মধ্য দিয়ে পলিথিনের নৌকা দুই-চার জন মিলে বেয়ে নিয়ে যায় কৃষকের বাড়িতে। নৌকা ডুবে যাওয়ার কোনও ভয় থাকে না।

কলাবাড়ী ইউনিয়নের বুরুয়া গ্রামের কৃষক পরিতোষ বিশ্বাস বলেন, ‘এই পলিথিনের নৌকা তৈরির আগে কাটা ধান পরিবহনের জন্য আমাদের অনেক ঝামেলা হতো। যেমন নৌকা সহসা পাওয়া যেত না, আর পাওয়া গেলেও গুনতে হতো অনেক টাকা বা ধান। প্রতিদিন নৌকা প্রতি এক থেকে দুই মণ ধান দিতে হতো, যা কৃষকের জন্য অত্যন্ত ব্যয়বহুল ছিল; আবার সময়ও বেশি লেগে যেত। আর এখন পলিথিনের নৌকা ব্যবহার করে কাটা ধান পরিবহনের জন্য সময় অনেক কম লাগে এবং ব্যয়ও কম।’

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রথীন্দ্রনাথ বিশ্বাস বলেন, ‘পলিথিনের নৌকায় কাটা ধান পরিবহনের জন্য ভালো। যেখানে অল্প পানিতে কাঠের নৌকা চলাচল করতে সমস্যা হয়, সেখানে পলিথিনের নৌকা ব্যবহার করে কৃষকদের কাটা ধান পরিবহন করতে সুবিধা হয়। তবে পলিথিন ফেটে যেতে পারে বলে এটার ব্যবহারে ভয়ও থাকে।’

বিশেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/ইলিয়াছ

Categories: অর্থনীতি

Leave A Reply

Your email address will not be published.