রবিবার ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ রবিবার

ধর্ষণ: ভারতে কথিত ধর্মগুরুর কারাদণ্ড

বিশেরবাঁশী ডেস্ক: ভারতে স্বঘোষিত আধ্যাত্মিক ধর্মগুরু আসারাম বাপু এক স্কুল পড়ুয়া কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পেয়েছেন। বুধবার রাজস্থানের যোধপুরের কেন্দ্রীয় কারাগারে আদালত বসিয়ে আসারামের বিরুদ্ধে এই রায় ঘোষণা করে। রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপীল করার কথা জানিয়েছে আসারামের আইনজীবী। সূত্রমতে, ৫ বছর আগে আসারামের বিরুদ্ধে এই মামলা করেছিল কিশোরীর বাবা। মামলা আসারামসহ ৫ জন অভিযুক্ত ছিল। এদের মধ্যে ২ জনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে। আসারামের যাবজ্জীবন হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ধর্ষণের শিকার কিশোরীর বাবা। তিনি বলেন, অবশেষে ন্যায় বিচার মিলল।

নাবালিকা ধর্ষণ থেকে পাচার-বহু অভিযোগ ছিল এই স্বঘোষিত ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে। পুলিশের পেশ করা চার্জশিটে ধর্ষণের স্পষ্ট উল্লেখ ছিল। যদিও সাক্ষীদের হত্যা করে মামলা প্রভাবিত করার চেষ্টা হয়েছে বার বার। নয়জন সাক্ষীর উপর বিভিন্ন সময় হামলা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে তিনজন প্রাণ হারিয়েছেন। আসারামের ব্যক্তিগত চিকিৎসক অম্রুত প্রজাপত, রাঁধুনি অখিল গুপ্তা ও অপর এক সাক্ষী ক্রিপাল সিংকে গুলি করে খুন করা হয়।

পুরো ভারতে প্রায় চারশটিরও বেশি আশ্রম আছে এই স্বঘোষিত ধর্মগুরুর, ভক্ত সংখ্যাও বহু। হাই প্রোফাইল এই মামলা ঘিরে তাই প্রায় দুর্গের চেহারা নিয়েছে যোধপুর। কেন্দ্রের নির্দেশে সর্বত্র নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যে কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত আসারাম, তিনি থাকেন উত্তরপ্রদেশে। সেখানেও নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। রাজস্থান, গুজরাট ও হরিয়ানায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত নিরাপত্তাকর্মী।

৩০ এপ্রিল পর্যন্ত যোধপুর জুড়ে ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে। শহরে সব বাস টার্মিনাল ও রেল স্টেশনে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। হোটেল ও ধর্মশালায় কারা আসা-যাওয়া করছেন, নজর রাখা হচ্ছে সে দিকেও। শহরের বাইরে পল রোডে আসারামের আশ্রম, সংঘর্ষের আশঙ্কায় সেটিও ফাঁকা করে দেয়া হয়েছে।

বিশেরবাঁশী ডেস্ক/সংবাদদাতা/ইলিয়াছ

Categories: আইন-আদালত

Leave A Reply

Your email address will not be published.